বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ১০:৫০ পূর্বাহ্ন

চুয়াডাঙ্গার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে মধ্য বয়সী এক নারীর সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকায় পুলিশে নালিশ

ষ্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে মাঝ বয়সি এক নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সিঅ্যান্ডবি মাঠপাড়ার কলমের দোকানের পাশে সুফিয়া খাতুনের বাড়ীতে এঘটনা ঘটে। মাঝ বয়সী ওই নারী পুলিশের কাছে নালিশ করেছেন। এ ঘটনা এলাকাজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।
অভিযোগকারী চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সিঅ্যান্ডবি মাঠপাড়ার আলফাজ উদ্দিনের স্ত্রী আকলিমা ওরফে ডলি অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম আমার মোবাইল ফোনে কল করে এলাকার কলমের দোকানের পাশে সুফিয়ার বাড়ীতে ডাক দেয়। আমি সেখানে গেলে কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম সুফিয়ার হাতে কিছু টাকা ধরিয়ে দিলে সুফিয়া বাইরে থেকে ঘরের দরজা আটকে দিয়ে বাইরে চলে যায়। এ সময় জাহাঙ্গীর আলম আমাকে ঘরের ভিতর একা পেয়ে আমার হাত চেপে ধরে এবং কু-প্রস্তাব দেয়। শুধু তাইনা, জাহাঙ্গীর আলম আমাকে কিছু টাকা দিয়ে তার সাথে অনৈতিক কাজের প্রস্তাব দেয়। পরে তিনি আমার হাত চেপে ধরে এবং আমার শরীর স্পর্শ করে ধস্তাধস্তি করতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে আমি জোর করে বাইরে বের হয়ে যায়।
এ ঘটনায় আকলিমা ওরফে ডলি অভিযোগ করে আরও বলেন, কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকী দিতে থাকে। শুধু তাইনা, কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম তার এক খালাকে দিয়ে বিষয়টি মিটিয়ে ফেলার জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেন বলে জানান ডলি। বিষয়টি জানাজানি হলে গতকাল শনিবার রাতে ডলির বাড়ীতে যায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের একটি টিম। আকলিমা ওরফে ডলি বিষয়টি পুলিশের কাছে নালিশ করেন।
এ ব্যপারে জানতে চাইলে কাউন্সিল জাহাঙ্গীর আলম তার বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা দাবী করে বলেন, সামনে নির্বাচন। একপক্ষ আমাকে সমাজের কাছে ছোট করার জন্য এধরনের মিথ্যা রটনা রটিয়ে বেড়াচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ডলির সাথে আমার দেখা হয়েছিলো ঠিকই, তবে তার কাছে আমি ভোট সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কথা বলেছিলাম।

সূত্র: দৈনিক পশ্চিমাঞ্চল পত্রিকা

 

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com