বুধবার, ০৬ Jul ২০২২, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন

হরিপুরে জমি সংক্রান্ত জেরে ছেলের হাতে মা খুন

 

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :সাইমন হোসেন

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলায় জমি সংক্রান্ত জেরে নিজের ছেলের হাতে আনসারী বেগম পারুল (৭০) নামে এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে।

১৪ মে (শনিবার) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার গেদুরা ইউনিয়নের বনগাঁও উত্তরপাড়া গ্রামে বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি ফলের বাগান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃত পারুল ওই গ্রামের আফতাব উদ্দীনের স্ত্রী।

উক্ত ঘটনায় নিহতের স্বামী আফতাব উদ্দীন বাদী হয়ে ২ ছেলেসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে হরিপুর থানায় হত্যা একটি দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মামলাম বাদী কিছুদিন পূর্বে তার দুই সন্তানকে নিজের ১৭ লক্ষ টাকা দিয়ে শর্তসাপেক্ষে একটি এসকেবেটার (ভেকু) ক্রয় করে দেন। কিছু দিন পরে শর্ত অনুযায়ী উক্ত টাকা দুই ছেলের কাছ থেকে ফেরত চাইলে তারা টাকা না দেওয়ার জন্য টালবাহানা শুরু করেন। এক সময় বাদী বিরক্ত হয়ে অন্য দুই ছেলেকে ঐ টাকার পরিবর্তে বসতভিটায় ২বিঘা জমি খোস কবলা করে রেজিষ্ট্রি করে দেয়। জমি রেজিষ্ট্রি দেওয়ার পর থেকে টাকা ফেরত না দেওয়া দুই ছেলেসহ উক্ত আসামীরা মা বাবার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

এর আগে গত শুক্রবার (১৩ মে) রাতে এই নিয়ে মা-বাবার সঙ্গে দুই ছেলের বাকবিতন্ডা হয়। এরপর সবাই খাওয়া দাওয়া করে যে যার ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে এবং মামলার বাদী (বাবা) বসতবাড়ীর উত্তর ভিটা শয়ন ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘরের ভিতরে ঘুমিয়ে পড়েন, এবং তার স্ত্রী শয়ন ঘরের দরজার পাশে বারান্দায় দরির খাটের উপর ঘুমিয়ে পড়ে।
শনিবার ভোরে নিজ বাড়ী হইতে আনুমানিক ৫০০ গজ দুরে একটি বাগানের ভিতরে রক্তাক্ত অবস্থায় আনসারী বেগম পারুল (৭০) এর লাশ দেখতে পায়।

এ মামলায় আসামীরা হলো ছেলে রফিকুল ইসলাম (৪৭), এজাবুদ্দিন বাবু (৩৫), ছেলের স্ত্রী রুম্পা আক্তার (২৬), জামাল উদ্দিন (৫০), জিএম (৩০), সাইদুর রহমান (৪০), নজরুল (৫০) সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪জন।

হরিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তাজুল ইসলাম হত্যা মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আফতাব উদ্দীন নামে এক ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল থেকে এক বৃদ্ধা মহিলার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এবিষয়ে থানায় হত্যা মামলা রুজু করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com