বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

চুয়াডাঙ্গায় ৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন, জোরপূর্বক ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্স ভর্তির অভিযোগে ভোট গ্রহণ স্থগিত

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের ভুলুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ঢুকে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্স ভর্তির অভিযোগে ভোট স্থগিত করা হয়েছে। এসময় কেন্দ্রের ভিতর ও বাইরে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। গতকাল রোববার বেলা ২ টার দিকে এঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চুয়াডাঙ্গা আদর্শ সরকারি মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যক্ষ ও ভুলুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার সাজ্জাদ হোসাইন।

তিনি বলেন, রোববার বেলা পৌনে ২ টার দিকে কিছু দুষ্কৃতিকারিরা ভুলুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের গোপন কক্ষে প্রবেশ করে জোরপূর্বক সিল মারে। তারা কোন প্রার্থীর কর্মী তা চিহ্নিত করা যায়নি। আইন শৃংখলনা পরিস্থিতির অবনতি হলে ভোট স্থগিত করা হয়।

এদিকে, অনিয়ম, জোরপূর্বক ব্যালট পেপারে সিল মারা, কর্মী ও এজেন্টের মারধরসহ নির্বাচনে সুষ্ঠ পরিবেশ না থাকায় ভোট বর্জন করেছেন চারজন চেয়ারম্যানপার্থী। তারা হলেন, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যানপ্রার্থী শাখাওয়াত হোসেন (আনারস), জুয়েল রানা (চশমা), নজরুল ইসলাম (মোটরসাইকেল) এবং আলুকদিয়া ইউনিয়নের ইসলাম উদ্দিন বিশ্বাস (আনারস)। বিভিন্ন অনিয়ম ও ভোট কারচুপির অভিযোগে নির্বাচন বর্জন করেছেন তারা।

অপরদিকে, রোববার সকালে চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার ও পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনে যান। বিভিন্ন অনিয়ম ও প্রকাশ্যে ব্যাপট পেপারে সিল মারার অভিযোগে কুতুবপুর ইউনিয়নের নবীননগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে জনগণের রোষানলে পড়েন তারা। সেখানে তাদের ঘিরে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার তাদের কাছ থেকে অভিযোগ শোনেন। পরে তাদের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে ২০ মিনিট পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম বলেন, কেন্দ্র পরিদর্শনে গেলে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তোলেন স্থানীয়রা। পরে সমাধানের আশ্বাস দিলে তারা শান্ত হয়। তবে আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখেছি। তাদের অভিযোগটি ভিত্তিহীন ছিল। জেলার চারটি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সদর ইউনিয়ন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা কামরুল হাসান বলেন, দুষ্কৃতিকারিকা জোপূর্বক ব্যাপল পেপারে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করে। সেখানে দায়িত্বরত প্রিসাইডিং প্রিসাইডিং অফিসার ভোট গ্রহনে অফিসার পরিবেশ বান্ধব মনে করেনি। তাই ওই কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, কোন প্রার্থী ভোট বর্জন করেছে বলে আমার জানা নেই।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com