বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১০:১২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

দেশের সবচেয়ে বড় চিনিকল দর্শনা কেরু অ্যান্ড কোম্পানীর আখ মাড়াই মৌসুমের উদ্বোধন

দর্শনা কেরুজ চিনিকলে ২০২১-২০২২ আখ মাড়াই মৌসুমের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।  শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) বিকাল ৩টায় মাড়াই মৌসুম উদ্বোধন উপলক্ষ্যে কেরুজ কেইন কেরিয়ার চত্বরে মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শুধুমাত্র কোম্পানীর চিনি কারখানায় গত মৌসুমেই ৭২ কোটি টাকার লোকসানের বোঝা মাথায় নিয়ে ৩ জন মন্ত্রী, সচিবসহ বিপুল সংখ্যক অতিথির উপস্থিতিতে দোয়া মাহফিলের পরপরই শিল্প সচিব জাকিয়া সুলতানার সভাপতিত্বে চিনিকলের কেইন কেরিয়ার চত্বরে ডোঙ্গায় আখ নিক্ষপের মধ্যদিয়ে মাড়াই কার্যক্রমের উদ্বাধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিল্প মন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ন, ব্যাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি, শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান অপু, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগার টগর।

এ সময় শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, সরকারী কোনো চিনিকলই বন্ধ হবে না। বন্ধ ছয় চিনিকল আধুনিকায়ন শেষে ফের চালু করা হবে। শুক্রবার বিকেলে দেশের সবচেয়ে বড় চিনিকল চুয়াডাঙ্গার দর্শনা কেরু অ্যান্ড কোম্পানীতে ২০২১-২২ অর্থবছরে আখ মাড়াই মৌসুম উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার উপস্থিত থেকে চিনিকলের কেইন কেরিয়ারে আখ নিক্ষেপের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মাড়াই মৌসুম উদ্বোধন করেন। এবার এ চিনিকলে তিন হাজার ৬০০ টন চিনি উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, মাড়াই কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। অবশ্যই আখের মূল্যবৃদ্ধির বিষয়ে যাচাই-বাছাই করে দেখা হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুয়ায়ী কৃষকরা যেন আখের ন্যায্য মূল্য পান, সেদিকেও খেয়াল রাখা হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, টিসিবির জন্য ট্রাক বাড়ালে হবে না, পণ্য থাকতে হবে। প্রতিটি উপজেলায় সপ্তাহে এক ট্রাক করে টিসিবির পণ্য পাঠানো হবে। কয়েক মাসের মধ্যে ১০০ ট্রাক বাড়াতে পারব। আন্তর্জাতিক বাজার থেকে তেল, ডাল ও চিনি আনতে হয়। আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর নির্ভর করে পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর, শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব জাকিয়া সুলতানা, চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. আরিফুর রহমান অপু, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মো. নজরুল ইসলাম সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কেরু অ্যান্ড কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মোশারফ হোসেন জানান, মাড়াই মৌসুম শুরু করতে চিনিকলের সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। তবে চিনিকল এলাকায় আখের চাষ কম হয়েছে। এজন্য এ বছর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা অর্ধেকে নেমে এসেছে। মিল চালু হলে চলতি বছর চিনিকল এলাকায় আখ চাষের পরিমাণ বেশি হবে।

বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের অধীন দেশের ১৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের মধ্যে অব্যাহত লোকসানের কারণে সরকার গত বছর ছয়টি চিনিকল বন্ধ করে দেয়। চালু রাখে ৯টি। বন্ধ ছয়টি চিনিকল হলো- কুষ্টিয়া চিনিকল, পাবনা চিনিকল, পঞ্চগড় চিনিকল, রংপুর জেলার শ্যামপুর চিনিকল, গাইবান্ধা জেলার রংপুর চিনিকল ও দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জ চিনিকল।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক ও দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান মনজু, দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাছলিমা আক্তার, চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোশারফ হোসেন। মহা-ব্যাবস্থাপক (কৃষি) গিয়াস উদ্দিন, মহা-ব্যাবস্থাপক (ডিষ্ট্রিলারী) ফিদা হাসান বাদশা, মহা-ব্যবস্থাপক (কারখানা) সুমন কুমার সাহা, মহা-ব্যাবস্থাপক (প্রশাসন) শেখ শাহাব উদ্দিন, উপ-ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মাসুদ রেজা, মহা-ব্যবস্থাপক (অর্থ) গোলাম জাকারিয়া, ব্যবস্থাপক বীজ পরিদর্শন ও কৃষিতত্ব বিভাগ-দেলোয়ার হোসেন, উপ-ব্যববস্থাপক (সংস্থাপন) আবদুল ফাত্তাহ উপ-ব্যবস্থাপক (পরিঃপ্রকৌঃ) আবু সাঈদ, উপ-ব্যাবস্থাপক (ব্যাণিজ্যিক) বদরুল আলম, কৃষি সম্প্রসারন (ডিজিএম) আব্দুর রউফ। কেরু এ্যান্ড কোম্পানী চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ সবুজ, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান, সহ এলাকার আখচাষী নেতৃবৃন্দ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে কেরুজ ট্রেনিং কমপ্লেক্স থেকে দেশের ১৫টি চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও আখচাষীদের সাথে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন মন্ত্রী, সচিব ও চেয়ারম্যান। এছাড়া অতিথিরা কেরুজ চিনিকলের বিভিন্ন বিভাগ পরিদর্শন করবেন। এরপর সন্ধ্যায় কেরুজ চিনিকলের গেষ্ট হাউজ চত্বরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। রোববার  ২৫ ডিসেম্বর দুপুরে ঢাকার উদ্দেশ্যে দর্শনা ত্যাগ করবেন অতিথিরা।

উল্লেখ্য, চলতি মাড়াই মৌসুমে কেরু কোম্পানীর ইতিহাস সর্বনিম্ন মাত্র ৪৪ কার্যদিবসে ৫৬ হাজার মেট্রিক টন আখ মাড়াই করা হবে। এরমধ্যে চিনিকলের নিজস্ব জমিতে ৯৮৯ একর এবং কৃষকের ৩ হাজার ৬৩৮ একর জমির আখ। যা মাড়াই করে ৭ দশমিক হারে ৩ হাজার ৩৮৯ মেট্রিক টন চিনি উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হলেও লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবার সম্ভাবনা ক্ষীণ।

 

এ.এইচ/আমাদের চুয়াডাঙ্গা

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com