বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

চুয়াডাঙ্গায় যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী মহান বিজয় দিসব পালন

সূর্যোদয়ের সাথে সাথে চুয়াডাঙ্গার শহীদ হাসান চত্বরে অবস্থিত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তর্বক অর্পণ করেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার ও পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম।

সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রোদ্ধা নিবেদনে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় এবং শহীদ আত্মার মাগফিরাত, দেশ এবং জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়। এরপর চুয়াডাঙ্গা পৌর পরিষদ, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. সাইফুর রশিদ, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, সিভিল সার্জন, স্বাস্থ্য বিভাগ, গণপূর্ত বিভাগ, সড়ক বিভাগ, চুয়াডাঙ্গা পল্লী বিদ্যুৎ অফিস, এনজিও, সামাজিক ও সংস্কৃতিক সংগঠন এবং পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তর্বক অর্পণ কর্মসূচি: মহান বিজয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ছয়টায় জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সকাল ৭টায় শহীদ হাসান চত্বরে অবস্থিত শহীদ বেদীতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনের নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগ। সকাল সাড়ে ১০টায় শহরে আনন্দ মিছিল বের হয়। আনন্দ মিছিলে অংশগ্রহণ করেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনের নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খুস্তার জামিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুজ্জামান লিটু, যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আরেফিন আলম রঞ্জু, জাতীয় শ্রমিক লীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি আফজালুল হক বিশ্বাস, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুন্নাহার কাকলী, যুব মহিলা লীগের সভাপতি আফরোজা পারভিন ও জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক।

জেলা যুবলীগের কর্মসূচি: বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬ টায় জেলা যুবলীগের কার্যালয়ের সামনে জাতীয় সঙ্গীতের তালে জাতীয় ও যুবলীগের দলীয় পাতাকা উত্তোলন, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পূস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে সকাল ৭ টায় জেলা যুবলীগ ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে চুয়াডাঙ্গা শহীদ হাসান চত্বরে অবস্থিত শহীদ বেদিতে পূস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে শহরে বিজয় র‌্যালি বের করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান, সদস্য আজাদ আলী, হাফিজুর রহমান হাপু, সাজেদুল ইসলাম লাভলু, আবুবক্কর সিদ্দিক আরিফ, আলমগীর আজম খোকাসহ যুবলীগের অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

পুরাতন স্টেডিয়ামে সমাবেশ, কুচকাওয়াজ, শরীরচর্চা ও পুরস্কার বিতরণ: জাতিরাষ্ট্র গঠনের জন্মযুদ্ধে বাঙালির বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি তথা বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টায় চুয়াডাঙ্গা পুরাতন স্টেডিয়াম মাঠে প্রধান অতিথি থেকে জাতীয় সংগীতের সঙ্গে সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম। এ সময় শান্তির প্রতীক শ্বেত কপোত অবমুক্ত করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন তাঁরা। গার্ড অব অনারের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে চৌকস প্রহরায় কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক সবার উদ্দেশে দেশের মহান স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রাখা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে সুখী, সমৃদ্ধ, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ভাষণ দেন।

বক্তব্য শেষে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মনোজ্ঞ মার্চপাস্ট ও সালাম গ্রহণ করেন প্রধান অতিথি। এরপর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন কর্তৃক শরীরচর্চা প্রদর্শনী উপভোগ করেন তাঁরা। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ছিল বাংলাদেশ পুলিশ, বিএনসিসি, রোভার স্কাউটস, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, আনসার-ভিডিপি, বয়েজ স্কাউটস, গার্লসগাইড, শিশুপরিবার, মুকুলফৌজ, হলদে পাখি, মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সংগঠন। কুচকাওয়াজ শেষে রকমারী সাঁজে নান্দনিক শরীরচর্চা প্রদর্শন করেন অংশগ্রহণকারীরা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাত রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কনক কুমার দাসসহ জেলার সব পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান এবং স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। আনুষ্ঠানিকতা শেষে কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লেসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। কুচকাওয়াজ “ক” বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করে গার্লস ইন রোভার সরকারি আদর্শ মজিলা কলেজ, ২য় স্থান অধিকার করে সরকারি শিশু পরিবার ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে গার্লস গাইড ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়। “খ”গ্রুপে প্রথম ফার্মপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে পুলিশ লাইন্স সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে। ডিসপ্লে প্রদর্শনে “ক” গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করে সরকারি শিশু পরিবার,২য় স্থান অধিকার করে চুয়াডাঙ্গা বুদ্ধি প্রতিবন্ধি অটিস্টিক স্কুল প্রকাশ এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করে কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ। “খ” গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করে কাবদর( ছাত্রী) ইসলাম পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে কাবদর (ছাত্রী) রেরবাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।

উন্নত খাবার পরিবেশন: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল, সরকারী শিশু পরিবার (এতিমখানা), জেলা কারাগার ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্কুলে তিন বেলা উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com