বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০২:২১ পূর্বাহ্ন

কালীগঞ্জে বিজয়ী মেম্বারকে কুপিয়ে জখম

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি:

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে রাশেদুল ইসলাম নামে নবনির্বাচিত এক মেম্বার প্রার্থীকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। গতপরশু সোমবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার কাষ্টাভাঙ্গা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাতগাছিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত রাশেদুল একই ওয়ার্ডের তেতুলবাড়িয়া গ্রামের আতিয়ার শেখের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, বিজয়ী মেম্বার প্রার্থী রাশেদুল ইসলাম তার ভাই ও বাবাসহ কয়েকজন অনুসারীকে নিয়ে নির্বাচনী ওয়ার্ডের সাতগাছিয়া গ্রামে মো. জুম্মন নামে অসুস্থ এক ব্যক্তিকে দেখতে যান। তার বাড়ির পাশে দাঁড়িয়ে তারা কথা বলছিলেন। এ সময় পরাজিত মেম্বার প্রার্থী কোরবান আলীর সমর্থকরা তাদের ওপর হামলা চালায়। হামলাকারীদের ধারালো দায়ের কোপে রাশেদুলের ডান পা কেটে যায়।

রাশেদুল ও জুম্মন পাশের একটি ঘরে আশ্রয় নেন। হামলাকারীরা রাশেদের সঙ্গে থাকা ভাই রফিকুল ইসলাম, বাবা আতিয়ার রহমান ও প্রতিবেশী মোমিনুর রহমানকে পিটিয়ে জখম করে। খবর পেয়ে বারোবাজার ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাতেই আহতদের উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এর মধ্যে দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। বাকি দুজন মেম্বার রাশেদ ও তার বাবা আতিয়ার হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

আহত নবনির্বাচিত মেম্বার রাশেদুল ইসলাম বলেন, আমি বিগত সময়েও নির্বাচিত মেম্বার ছিলাম। ২৮ নভেম্বর ইউপি নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পরের দিন অসুস্থ কর্মীকে দেখতে গেলে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী কোরবানের সমর্থকরা হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। এ সময় কোনোরকম পাশের একটি ঘরে আশ্রয় নিলে সেখানেও তারা ভাঙচুর চালায়।

এ বিষয়ে জানতে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী কোরবান আলীর মোবাইল নম্বরে কল দিলেও তিনি রিসিভ করেন নি।

বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোকলেছুর রহমান বলেন, রাতে সংবাদ পাওয়ার পর আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে মেম্বারসহ আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করার ব্যবস্থা করি। তবে এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com