বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

দুশ্চিন্তায় বিশ্ববাসী, চোখ রাঙাচ্ছে ওমিক্রন

  • অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ার আশঙ্কা
  • মোকাবেলায় প্রস্তুতির তাগিদ ডব্লিউএইচওর
  • দেশে দেশে সীমান্ত বন্ধের হিড়িক

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের রূপান্তরিত ধরন ওমিক্রন ‘অত্যন্ত ঝুঁকি’ তৈরি করতে পারে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। করোনার নতুন এই ধরনে বৈশ্বিক ঝুঁকি অনেক বেশি হবে বলে সতর্ক করে ডব্লিউএইচও জানিয়েছে ওমিক্রন আরও ছড়াবে, এ জন্য বিশ্বকে প্রস্তুতি নিতে হবে। অন্যদিকে, করোনার ওমিক্রন ধরনের কারণে আফ্রিকার দেশগুলোর ওপর বিধিনিষেধ জারি করেছে কমপক্ষে ৪৪টি দেশ। এ ছাড়া ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন, যার ফলে বিশ্বজুড়ে সীমান্ত বন্ধের হিড়িক শুরু হয়েছে। খবর বিবিসি, রয়টার্স ও এএফপির।

ডব্লিউএইচও’র প্রধান টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস বলেছেন, ‘নতুন ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার হচ্ছে ভবিষ্যত মহামারী মোকাবেলায় আমাদের যৌথ সামর্থ্যের পরীক্ষা।’ ওমিক্রন ইস্যুতে সোমবার শুরু হওয়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরী অধিবেশনের উদ্বোধনে এ সব কথা বলেন তিনি। তিনদিনের ওই অধিবেশনের শুরুতে টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস বলেন, মহামারী অবসানের মূল হবে ‘সাহসী এবং সহানুভূতিশীল নেতৃত্ব’ এবং ‘পারস্পরিক সহমর্মিতার প্রতি অবিচল প্রতিশ্রুতি।’ ভ্যাকসিন বিতরণে বৈষম্যের কঠোর সমালোচনা করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান। টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস বলেন, ‘ভাইরাসটির বিস্তার এবং এর পরিবর্তন ঠেকাতে সব দেশেই টিকাদান জরুরী।’ সোমবার জেনেভায় ডব্লিউএইচওর সদর দফতর থেকে ওমিক্রন নিয়ে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে। বিবৃতিতে ১৯৪টি সদস্য দেশকে টিকাদান কর্মসূচীর গতি আরও বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে ডব্লিউএইচও।

বিশ্বজুড়ে সীমান্ত বন্ধের হিড়িক ॥ দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ শনাক্ত হওয়ার পর বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে এক ডজন দেশে এই ভ্যারিয়েন্ট পৌঁছে যাওয়ায় অনেক দেশ ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এবং বিমান চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করছে। সোমবার জাপান জানিয়েছে, তারা বিদেশীদের জন্য সীমান্ত বন্ধ করছে। বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির এই দেশটি করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া ইসরাইলের পথে হেঁটেছে। অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার দুয়ার পুনরায় খুলে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে দেখা দিয়েছে শঙ্কা। আগের সব ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় সম্ভাব্য অতি-সংক্রামক ওমিক্রন গত বুধবার দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয়। এরপর থেকে এই ভ্যারিয়েন্ট অস্ট্রেলিয়া, বেলজিয়াম, বতসোয়ানা, ব্রিটেন, কানাডা, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইসরায়েল, ইতালি এবং নেদারল্যান্ডসেও শনাক্ত হয়েছে।

আফ্রিকার দেশগুলোর ওপর ৪৪ দেশের বিধিনিষেধ ॥ করোনার ওমিক্রন ধরনের কারণে আফ্রিকার দেশগুলোর ওপর বিধি-নিষেধ জারি করেছে কমপক্ষে ৪৪টি দেশ। জাপান এবং ইসরাইল সব দেশের নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। ফলে অন্য দেশের নাগরিকরা এখন এই দুই দেশে প্রবেশ করতে পারবেন না। এদিকে, ওমিক্রনের সংক্রমণ ঠেকাতে আফ্রিকার ছয়টি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাজ্য। ইসরাইলও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এনেছে দক্ষিণ আফ্রিকার দেশগুলোর ওপর। আফ্রিকার দক্ষিণের দেশগুলোর মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকাসহ সাতটি দেশে ভ্রমণে বিধিনিষেধ জারির পাশাপাশি নতুন ধরন সংক্রমণের ওপর নজর রাখছে তারা। নিজেদের নাগরিকদেরও ওই অঞ্চলে ভ্রমণে বিধিনিষেধ জারি করেছে ইসরাইল। অস্ট্রেলিয়াও এ বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছে। নিউজিল্যান্ড জানিয়েছে, তারা কোভিডের এই নতুন ধরন ঠেকাতে প্রস্তুত। মালদ্বীপ, থাইল্যান্ড আফ্রিকার ৮ দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

অপরদিকে, সোমবার থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করছে যুক্তরাষ্ট্রও। দক্ষিণ আফ্রিকার ৯ দেশের ওপর বিধিনিষেধ জারির কথা জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সিঙ্গাপুর। এ ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নও নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপের ব্যাপারে চিন্তা করছে। বিশেষ করে ইউরোপে করোনা মহামারীর চতুর্থ ঢেউ চলমান থাকায় বিভিন্ন দেশের কর্তৃপক্ষ এ বিষয়টি নিয়ে চিন্তায় পড়েছে। দুই সপ্তাহ আগে আফ্রিকার সাত দেশ অর্থাৎ দক্ষিণ আফ্রিকা, লেসোথো, বতসোয়ানা, জিম্বাবুয়ে, মোজাম্বিক, নামিবিয়া ও এসওয়াতিনিতে ভ্রমণ করা কোন ব্যক্তিকে ইতালিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা এনেছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে ওমিক্রন ॥ ইউরোপের বেশ কিছু দেশে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। অনেক দেশই এরই মধ্যে প্রথম কেস শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে। করোনার নতুন এই ধরনটির বিস্তারের মাত্রা বোঝার চেষ্টায় উঠেপড়ে লেগেছে বিভিন্ন দেশের সরকার। সোমবার যুক্তরাজ্যে ওমিক্রনে আক্রান্ত নয়টি কেস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে স্কটল্যান্ডেই আক্রান্ত হয়েছে ছয়জন। অপরদিকে, নেদারল্যান্ডস এবং পর্তুগালে ১৩ জন করে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। পর্তুগালে আক্রান্ত সবাই লিসবনভিত্তিক একটি ফুটবল টিমের সদস্য। অপরদিকে, শুক্রবার দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আমস্টারডামের স্কিফল বিমানবন্দরে আসা ১৩ জনকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তাদের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত হয়। এদিকে জার্মানিতে তিনজন, ইতালি, চেক প্রজাতন্ত্র এবং বেলজিয়ামে একজন করে করোনার নতুন এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছেন। সোমবার শুরুর দিকেই অস্ট্রিয়া জানায়, তাদের দেশে ওমিক্রনে আক্রান্ত প্রথম কেস শনাক্ত হয়েছে।

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ভ্রমণ ॥ মরক্কোর সরকার জানিয়েছে, ২৯ নবেম্বর থেকে পরবর্তী দুই সপ্তাহের জন্য আন্তর্জাতিক সব যাত্রীবাহী ফ্লাইটের অবতরণ বন্ধ থাকবে। কাতার, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাতের মতো মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে টিকাগ্রহণকারীদের জন্য ভ্রমণ চালুর পরিকল্পনা পিছিয়ে দিয়েছে সিঙ্গাপুর। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই নগর-রাষ্ট্র এবং প্রতিবেশী মালয়েশিয়ার স্থল সীমান্ত পুনরায় খুলে দেয়া হয়েছে। প্রায় দু’বছর ধরে বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত এই স্থল সীমান্ত বন্ধ রাখার পর সম্প্রতি টিকা নেয়া দর্শনার্থীদের জন্য চালু করা হয়েছে।

হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নতুন শনাক্ত ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন এবং যুক্তরাষ্ট্রের নেয়া পদক্ষেপের ব্যাপারে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে প্রতিনিয়ত হালনাগাদ তথ্য দেয়া হচ্ছে। এদিকে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার তীব্র সমালোচনা করে দক্ষিণ আফ্রিকা বলেছে, বিশ্বের এই সিদ্ধান্ত অন্যায্য এবং দক্ষিণ আফ্রিকার অর্থনীতির জন্য ক্ষতিকর। দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত করার বৈজ্ঞানিক সক্ষমতাকে শাস্তি দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে দেশটি।

ওমিক্রন অধিক সংক্রামক- ফাউসি ॥ দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হওয়া কোভিড-১৯ এর ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনকে ‘অধিক সংক্রামক’ বলে মনে করছেন যুক্তরাষ্ট্রের মহামারী মোকাবেলায় গঠিত কমিটির প্রধান ও প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের করোনাবিষয়ক উপদেষ্টা অ্যান্থনি ফাউসি। আমেরিকানদের টিকা এবং বুস্টার ডোজ গ্রহণের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন তিনি। এনবিসির মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শীর্ষ মেডিক্যাল উপদেষ্টা অ্যান্থনি ফাউসি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যে সংক্রমণ বাড়ছে এবং আমেরিকানরা ‘একটি অন্ধকার বা ঝাপসা শীতের দিকে যাচ্ছে কি না’ সেটির ওপর নতুন ভ্যারিয়েন্টের উত্থান এবং প্রতিরোধের জোরদার উপায় প্রভাব ফেলবে।’ এর আগে, গত সপ্তাহে দক্ষিণ আফ্রিকাসহ আফ্রিকার আটটি দেশে যুক্তরাষ্ট্রের ভ্রমণ বিধিনিষেধ আরোপ করেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ওমিক্রন মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্রের নেয়া পদক্ষেপের ব্যাপারে অ্যান্থনি ফাউসি এবং মার্কিন করোনা মোকাবেলা দল বাইডেনকে হালনাগাদ তথ্য জানাবে।

ওমিক্রনের উত্তর খুঁজছেন বিজ্ঞানীরা ॥ ওমিক্রনের শক্তি বুঝতে কয়েকদিন থেকে কয়েক সপ্তাহ লেগে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। করোনা ভাইরাসের নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটি বিশ্বজুড়ে শঙ্কা সৃষ্টি করেছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের বারবার নতুন রূপে ফিরে আসার অর্থ এটা নয় যে, এই ভ্যারিয়েন্টটি আরও ভয়ঙ্কর। তবে এই ভাইরাস অন্য রূপ বদল করে মানবদেহের সঙ্গে আরও অভিযোজিত হয়ে গেছে। করোনা ভাইরাসের নতুন অভিযোজিত রূপ ওমিক্রন কতটা ভয়ঙ্কর, সে বিষয়ে এখনই নিশ্চিত নন গবেষকরা। তাদের মতে, ‘এই অভিযোজন যদি নিরপেক্ষ হয়, তাহলে সেটা কম বিপজ্জনক নাকি বেশি বিপজ্জনক তা অন্য গবেষণায় জানা যাবে।’ মিলান স্টেট ইউনিভার্সিটির ক্লিনিক্যাল মাইক্রোবায়োলজির অধ্যাপক ও ব্যামবিনো গেসুর গবেষক ক্লাউডিয়া আলতেরি বলছেন, ‘গবেষক দল আপাতত মিউটেশনের ত্রিমাত্রিক স্পাইক প্রোটিনের মিউটেশনের অনুসন্ধানের ওপরই গুরুত্ব আরোপ করেছেন।’ সূত্র: জনকন্ঠ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com