শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ ধারণ করার জন্য আমরাই দায়ী।

১) বিভিন্ন উপাসনালয়ে ধর্মের দোহাই দিয়ে ও অপপ্রচার করে স্বাস্থ্য বিধি মানতে অনুৎসাহিত করা করেছে। অনেকের মনোভাব এমন ছিলো যে, যেভাবেই হোক সরকার যেন বেকায়দায় পড়ে যায়;

২) ওযাজ মাহফিলে ‘আল্লাহর কসম কোন মুসলমানের করোনা হবে না’ বলে আমরা স্বাস্থ্য বিধির বারোটা বাজিয়েছি;

৩) গ্রামগঞ্জে করোনা হয় না, এমন বিভিন্ন অপপ্রচারে গ্রামের মানুষ স্বাস্থ্যবিধির প্রতি উদাসিন ছিলাম;

৪) এটা বড় লোকের রোগ, আমার কিছুই হবে না বলে অনেকেই দিব্যি ঘুরে বেড়িয়েছি;

৫) মৃত্যুভয় না থাকলে কোন কিছুকেই বাঙালি পাত্তা দেয় না। আতঙ্কিত না হতে নির্দেশনা থাকায় নো টেনশন মোডে আমরা নির্ভয়ে বুক ফুলিয়ে চলেছি; করোনা আমাদের কাছে ছিল আতঙ্কহীন, অবহেলিত ও গুরুত্বহীন;

৬) জীবন বাঁচানোর চেয়ে আয়-রোজগার করা এবং ঘুরে বেড়ানোটাই আমাদের কাছে বড়;

৭) স্বাস্থ্যবিধি না মানাটা বাহাদুরী মনে করে এবং বেপরোয়া চলাচল করে নিজেদের বিপদ নিজেরাই ঢেকে এনেছি;

৮) অপপ্রচার ও কুসংষ্কারের খপ্পরে পড়ে ভ্যাক্মিন নিতেও আমরা অনিহা প্রকাশ করেছি;

৯) শিশু ও যুবকরা বাহিরে ঘুরাফেরা করে নিজে আক্রান্ত না হলেও ভাইরাস ঘরে ঘরে এনে মুরুব্বী/সিনিয়রদের আক্রান্ত করিয়েছি;

১০) দায়িত্বশীল বিভিন্ন বিভাগের অব্যবস্থাপনা এবং সমন্বয়হীনতা দূর্ভোগ বাড়িয়েছে; এবং

১১) যারা আক্রান্ত হইনি বা আক্রান্ত হয়েও সুস্থ হয়েছি তাদের মধ্যে অনেকের ধারণা করোনা আমাদের কিছুই করতে পারবে না!

এখনো সময় আছে এসব ভ্রান্ত ধারণা পরিত্যাগ করি এবং আরো ভয়াবহ পরিণতি দেখার আগেই আমরা ভালো হয়ে যাই।

মুসলিম-অমুসলিম, ধনী-গরীব, গ্রাম-শহর কিছুই মানছে না করোনা। এর ভয়ঙ্কর থাবা থেকে রেহাই পেতে আমরা আরো সচেতন হই এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি। নিজে বাঁচি দেশকে বাঁচাই। খেটে খাওয়া মানুষ এবং ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকি।

মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।

 

নাজনীন আলম
গৌরীপুর, ময়মনসিংহ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT