রবিবার, ২৫ Jul ২০২১, ০৬:৫১ অপরাহ্ন

ছেলের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ বাবা-মা, পুলিশে ধরিয়ে দিয়ে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন

দিনাজপুর প্রতিনিধি:
প্রতিটি সন্তান মা-বাবার বুকের ধন, আনন্দের উৎস। নিজের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য, আনন্দ-আহলাদ জলাঞ্জলি দিয়ে মা-বাবা সন্তানের সুখ প্রত্যাশা করেন। তবে মা-বাবা কখনও কখনও বাধ্য হয়ে সন্তানকে সাময়িক শাস্তি দেন। দূরে সরিয়ে রাখতে বাধ্য হন।

কঠোর আচরণ করেন। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে উত্তরাঞ্চলের দিনাজপুরের বীরগঞ্জে।

বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের জগদল গ্রামের বাবা মা তাদের সন্তানকে আজ ১৪ এপ্রিল বুধবার গাঁজা সেবনরত অবস্থায় ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশের কাছে ধরিয়ে দিয়েছে।

আল আমিনের পিতা মাতার আর্তনাদ যে, তাদের ছেলে নেশা করে ঘরের সকল আসবাবপত্র এবং জমিজামা বিক্রি করে দিচ্ছে। সহকারী কমিশনার (ভূমি) ম্যাজিস্ট্রেট ডালিম সরকার, মাদকাসক্ত ছেলে আল আমিন কে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করেন। পিতার মাতার অভিযোগের ভিত্তিতে আল আমিনকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ২০১৮ আইনে ১০ মাস ১০ দিন বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন। বীরগঞ্জ পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাবিনা ইয়াসমিনসহ পুলিশ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অতীতে আরও কয়েকজন মা-বাবা নিজের সন্ত্রাসী, অবাধ্য ও মাদকাসক্ত সন্তানকে পুলিশে অথবা আইনের হাতে তুলে দেবার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। অনেকে সন্ত্রাসী ও অবাধ্য সন্তানকে ত্যাজ্যপুত্র ঘোষণা করে পৈতৃক সম্পত্তি থেকে বঞ্চিতও করেছেন। আমরা এও দেখেছি, ছেলে জঙ্গি হওয়ার দরুণ লাশ সৎকারের জন্য গ্রহণ করা তো দূরের কথা, শেষ দেখাও দেখতে আসেনি অনেকে। সর্বশেষ দেখলাম স্নেহময় এক বাবার এমন কঠিন শাস্তি।

তার পরও মাদকের সয়লাব থামছে না। গাঁজা টানে এমনই এক নেশা, যে নেশার কাছে সমাজ-সংসার সব তুচ্ছ হয়ে যায়। মাদক সেবন করাই তাদের প্রধান লক্ষ্য হয়ে ওঠে। সর্বনাশা মাদকের ছোবলে বহু সংসার ছারখার হয়ে গেছে এবং যাচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT