শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন

চুয়াডাঙ্গায়  গুলি ও ম্যাগজিনসহ বিভিন্ন ৭ মামলার আসামী বাকের গ্রেফতার

হত্যাচেষ্টার কাজে ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও শাকেরকে ধরতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত

ষ্টাফ রিপোর্টার:

চুয়াডাঙ্গায় প্রকাশ্যে সাচ্চু শেখ নামের এক ট্রাক চালককে গুলি করেছে একদল যুবক। পূর্ব বিরোধের জেরে তার উপর গুলি চালায় বলে একাধিক সুত্রে জানা গেছে।  শনিবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা শহরের বাসটার্মিনাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত সাচ্চু শেখ (৪০) চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের মাঝেরপাড়ার মৃত আরিফিন শেখের ছেলে। আহত সাচ্চু শেখকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত। ঘটনার ঘন্টাখানেকের মাথায় ৬ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিনসহ বাকের নামের এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত বাকের (২৮) চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার নুরনগর বাঙ্গালপাড়ার সুসাহেব ওরফে জাহাঙ্গীরের ছেলে।
গুলিবিদ্ধ ট্রাক চালক সাচ্চু শেখ জানায়, ‘গতকাল বেলা আনুমানিক ৪টার দিকে ট্রাক নিয়ে চুয়াডাঙ্গা বাসটার্মিনালের পাশে একটি মোটরমেকানিকের কাছে যায়। ট্রাক থেকে নামার সাথে সাথেই সেখানে যায় শাকের ও তার ভাই বাকের। তারা আমাকে ডাক দিলে আমি তাদের ডাকে সারা দিয়ে একটু দুওে যেতেই তারা আমাকে গুলি করে পালিয়ে যায়’। সাচ্চু শেখ মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন গুলিবিদ্ধ রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের সিনিয়ার সার্জারী কনসালটেন্ট ডা. ওয়ালিউর রহমান নয়ন জানান, সাচ্চু শেখের তলপেটের বামপাশে গুলি লেগেছে। আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেছি। তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।
এদিকে,  রাত ১০টার দিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আহত সাচ্চু শেখকে বহনকরা অ্যাম্বুলেন্সটি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌঁচেছে। রাতেই তাকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং সাচ্চু শেখ সুস্থ আছে বলে জানা গেছে।
এলাকার একাধিক সুত্র থেকে জানা গেছে, গত শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে বাকের আলী নুরনগর মোড়ে অবস্থিত সিরাজের দোকানে যায় এবং সেখানে চাঁদা দাবী করে। চাঁদার টাকা না পেয়ে বাকেরের সাথে সিরাজের ছেলে হাবিবুর ও সাচ্চুর ভাই জামালের সাথে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়।
পরিচয় নিতে গিয়ে জানা যায়, সিরাজের ছেলে হাবিবুর সাচ্চুর ভাই জামালের ভাইরাভাই। গতকাল বাকের ও তার ভাই শাকের মিলে জামালকে না পেয়ে তার ভাই সাচ্চুকে একা পেয়ে গুলি করে।
অপরদিকে, এ ঘটনার পরপরই সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবু জিহাদ ফখরুল আলম খানসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে শাকেরের বাড়ীতে অভিযান চালায়। অভিযানে শাকেরের বাড়ী থেকে ৬ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করেন।
এদিকে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে নুরনগর এলাকায় অভিযান চালায়। সেখানে একটি ভুট্রা ক্ষেত থেকে বাকেরকে গ্রেফতার করে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান জানান, ‘ক’একদিন থেকে ট্রাক চালক সাচ্চু শেখের সঙ্গে শহরের বাসটার্মিনাল এলাকার ক’এক যুবকের বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে শনিবার সাচ্চুকে লক্ষ্য করে এক রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায় দুই যুবক। পরে ছয় রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিনসহ বাকের নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে।’ আটক বাকেরের নামে চুয়াডাঙ্গা সদর থানাসহ ক’একটি থানায় নারী ও শিশুসহ অস্ত্র আইনে সাতটি মামলা রয়েছে। তিনি আরও বলেন, হত্যাচেষ্টার কাজে ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও অভিযুক্ত শাকেরকে ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।
এদিকে, পুলিশের এ ধরণের অভিযানে এলাকাবাসী সাধুবাদ জানিয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছিলো।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT