বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫২ অপরাহ্ন

সন্তানকে নিয়ে বিতাড়িত স্ত্রী’র স্বামী-সংসার ফিরে পেতে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ চান

জীবননগর’র রায়পুরে প্রথম স্ত্রী সন্তানকে বিতাড়িত করে স্বামীর পরকীয়ার টানে দ্বিতীয় বিয়ে

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি:

জীবননগর রায়পুরে সংসারে স্ত্রী ও ২শিশু সন্তান থাকা সত্বেও পরকীয়ার টানে ২সন্তানের জননীকে বিয়ে করেছে এক স্বামী। দ্বিতীয় বিয়ের ২মাসের মধ্যে নব-বিবাহিতা স্ত্রীর কু-পরামর্শে ছোট্ট শিশুসহ প্রথম স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে পাষন্ড স্বামী।
নিজের সংসার ফিরে পেতে প্রথম স্ত্রী কোহিনুর আক্তার প্রিয়া স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও রায়পুর ফাঁড়ি পুলিশে অভিযোগ করেও মেলেনি কোন প্রতিকার। অবশেষে ছোট্ট শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে বিচারের আশায় ঘুরছে পথে পথে। গৃহবধুর এই আহাজারীতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে উপজেলা লোকমোর্চা। সংস্থাটির একটি প্রতিনিধি দল সমাধানের আশায় স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের সাথে নিয়ে ২৪ ফেব্রুয়ারী বুধবার হাজির হয় স্বামীর রায়পুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের বাড়িতে। কিন্তু স্বামী ও তার দ্বিতীয় স্ত্রীসহ পরিবারের সদস্যরা সাফ জানিয়ে দেয় তারা কোন ভাবেই কোন বিচার সালিশে হাজির হবেনা। তাদের রয়েছে অদৃশ্য ক্ষমতা।
অভিযোগে জানা যায়, জীবননগর উপজেলার রায়পুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত মোবারেক আলীর ছেলে কাওসার আলীর সাথে বিয়ে হয় প্রথম স্ত্রী কহিনুর আক্তার প্রিয়ার। তাদের দীর্ঘ ৬ বছরের দাম্পত্য জীবনে রয়েছে ২বছর ৬মাস বয়সের সিয়াম হোসেন নামে একটি পুত্র সন্তান ও ১বছর ১মাস বয়সের ১টি কন্যা সন্তান। প্রিয়ার অগোচরে আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের সাড়াবাড়ীয়া গ্রামের মিনারুলের স্ত্রীর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে স্বামী কাওসার আলী। অত্যান্ত গোপনে গত ৪মাস আগে প্রথম স্ত্রী প্রিয়ার কাছে তথ্য গোপন করে বিয়ে করে কাওসার। তারপর থেকে দ্বিতীয় স্ত্রীকে ঘরে তুলতে প্রিয়ার সাথে নানা অপবাদ দিয়ে নির্যাতন করে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার কৌশল বেছে নেয় স্বামী। অবশেষে ছোট্ট শিশু সন্তানসহ প্রিয়াকে জোর পুর্বক বাড়ি থেকে বের করে দেয়। সেই সাথে ঘরে তোলে পরকীয়া প্রেমে মত্ত দ্বিতীয় স্ত্রীকে। প্রিয়া তার স্বামী সংসারে আশ্রয় পেতে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ করেও স্বামী প্রভাবশালী হওয়ায় সালীশ বৈঠকে হাজির হয়নি। শেষমেষ রায়পুর পাড়ী পুলিশের অভিযোগ করেও মেলেনি প্রতিকার। প্রিয়া তার স্বামীর সংসারে সন্তান নিয়ে বেচে থাকার জন্য পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি