বৃহস্পতিবার, ২৯ Jul ২০২১, ১০:০৮ অপরাহ্ন

ঝিনাইদহ’র শৈলকূপা উপজেলা উপ-নির্বাচনে নৌকা মার্কার প্রচার তুঙ্গে থাকলেও মাঠে নেই ধানের শীষ ও আনারসের প্রার্থী

আনোয়ার হোসেন, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি:

আগামী ২৮ ফেরুয়ারী অনুষ্ঠিত হতে চলছে শৈলকূপা উপজেলার চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন। উক্ত উপ-নির্বাচনে ৩ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদন্দ্বিতা করছে। নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী উপজেলার সাবেক আওয়ামী লীগের সভাপতি সদ্য প্রয়াত শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনারসহ ধর্মিণী শেফালী বেগম, ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপি প্রার্থী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র দলের সাবেক ছাত্রনেতা হুমায়ন বাবর ফিরোজ ও আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনিচুর রহমান।
প্রতিদিন নৌকার সমর্থনে মাইকিং, পোষ্টারিং, নির্বাচনী সভা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উপজেলার কোথাও চোখে পড়ে নি ধানের শীষ ও আনারস প্রতীকের কোন মাইকিং পোষ্টারিং, নির্বাচনী সভা সমাবেশ। উপজেলার সর্বত্র নৌকার প্রার্থীর প্রচার প্রচারণা চোখেপড়ার মত। যেখানেই নৌকার সমর্থনে সমাবেশ
সেখানেই ব্যাপক জনতার উপস্থিত। সমস্ত উপজেলা ব্যাপী আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা অতীতের সকল দণ্ড ভুলে গিয়ে ঐক্যবন্ধভাবে চালিয়ে যাছে নির্বাচনী প্রচার। বিগত নির্বাচনে দণ্ড থাকলেও এবারের নির্বাচনে চিত্র ভিন্ন নেই দণ্ড বিভেদ। এতে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা নৌকা প্রার্থীর জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।
তবে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপি সমর্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ন বাবর ফিরোজ বললেন ভিন্ন কথা। নির্বাচন প্রসঙ্গে সাংবাদিকদেও কাছে বিস্তার অভিযোগ। তিনি জানান উপজেলায় নির্বাচনের পরিবেশ নেই। নির্বাচনে দল তিনার প্রার্থী ঘোষণার পর থেকেই তার প্রতি শুরু হয়েছে হুমকী-ধামকী মনোনয়নপত্র জমা না দেওয়ার জন্য বিভিন্ন কৌশল। তবে জমা দেওয়ার পর তার মনোনয়ন পত্রের প্রস্তাব সমর্থককে করেছে বাড়ী ছাড়া। নির্বাচনী পোষ্টার টাংগানোর অপরাধে দুই কর্মীকে করা হয়েছে ব্যাপক মারধর। উপজেলা ব্যাপী কর্মীদের চলছে ব্যাপক হুমকী। স্থনীয় সংসদ সদস্য নির্বাচনী প্রতিনিয়ন নৌকার পক্ষে এলাকায় সভা সমাবেশ চালিয়ে যাচ্ছে। জেলা নির্বাচন কমিশন না দেখার ভান করে বসে আছে। ধানের শীষের ব্যাপক জনপ্রিয়তায় তারা ভীতু হয়ে এই গুলি চালিয়ে যাচ্ছে। তবে নির্বাচন কমিশনার যদি ভোটারদের কেন্দ্রে যাওয়ার নিশ্চয়তা প্রদান করতে পারে তাহলে আমার জয় ঠেকাতে পারবে না। নৌকার প্রার্থীর বিজয় লাভ করতে হলে তাকে অবশ্যই ভোট কেটে কারচুপি করেই জিততে হবে।
এই নির্বাচনে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আনিচুর রহমান বলেন, সমস্ত উপজেলা ব্যাপী আমার ব্যাপক সমর্থক রয়েছে। যার কারণে নির্বাচনী প্রচার মাইক বের করার সাথে সাথে আমার প্রচার মাইক আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে ও অপর মাইক ভাংচুর করে ভ্যান চালকের মারধর করেছে। যেখান যেখান পোষ্টার টাঙ্গানো হয়েছিল তা ছিড়ে ফেলা হয়েছে। যারা সমর্থনে এলাকায় কাজ করছিল তাদের বাড়ীতে বাড়ীতে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আমাকে প্রতিনিয়ন বিভিন্ন মাধ্যম দিয়ে হুমকী দেওয়া হচ্ছে। শৈলকূপা উপজেলায় আনারস প্রতীক পরিচিত প্রতীক। যার কারণেই বিগত উপজেলা নির্বাচনে নৌকার বিপরীতে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয় লাভ করে। প্রশাসন যদি ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত নিশ্চিত করতে পারে এবং ভোটারা শুধু ভোট দেওয়ার সুযোগ পায় তাহলে অবশ্যই আমি আনারস প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে বিজয় লাভ করব।
তবে এই ভোট নিয়ে জন সাধারণের মাঝে তেমন আগ্রহ নেই। নেই নির্বাচনী আমেজ। চায়ের দোকানে নেই নির্বাচনী শোরগোল। উপজেলার সর্বত্র একই আলোচনা নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ছাড়া কেউ জিতবে না। যেখানে নৌকা প্রতীক আছে সেখানে অন্য প্রতীকের কি দরকার? এই নির্বাচন নিয়ে জনসাধারণ কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না। তবে তারা জানিয়েছেন যে আমরা শুধু শুনেছি নৌকা ছারাও আরও দুই জন চেয়ারম্যান প্রার্থী আছে। কিন্ত তাদের কোন প্রচার প্রচারণা মাঠে দেখা যাচ্ছে না। তাদের আমরা দেখিনি কোথায় ভোট চাইতে।
শৈলকূপা উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মতিয়ার রহমান বলেন- জননেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় শৈলকূপায় এখন বিএনপি নেই বললেই চলে। কর্মী সমর্থক না থাকায় বিএনপির প্রার্থী এখন মোবাইলে ভোট চাচ্ছে। শৈলকূপা আওয়ামী লীগের কোন কর্মী সমর্থক তার নির্বাচনী প্রচারে বাঁধা প্রদান করে নি ও হুমকী দেয় নি। তিনি আরও বলেন- যে শুনেছি আনিচুর রহমান নামে একজন নির্বাচনে আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আছে। তবে তাকে কেউ চেনে না। তাকে কেন হুমকী দেবে। নির্বাচনে যদি প্রতি পক্ষ প্রার্থী না থাকে তাহলে সে নির্বাচন প্রাণবন্ত হয় না।
উল্লেখ্য- গত ৪ঠা নভেম্বর স্বতন্ত্র উপজেলা চেয়ারম্যান শৈলকূপা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনার মৃত্যুতে উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ শূন্য হয়।

 

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT