রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০১:৫৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মনে প্রাণে ধারণ করি- জুয়েল চেয়ারম্যান কুষ্টিয়ায় সেফটি ট্যাংকের ভিতরে ২ নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ইফতার বিতরণ মেহেরপুরের আমঝুপি গ্রামে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু চুয়াডাঙ্গায় গাঁজাসহ আটক ৩, ভ্রাম্যমাণ আদালতে জেল-জরিমানা ঝিনাইদহে ভারত ফেরত ১৪৭ বাংলাদেশী হোম কোয়ারেন্টাইনে কর্মহীন পরিবারের বাড়ীতে বাড়ীতে ইফতার সামগ্রী পৌঁছে দিলেন একদল যুবক চুয়াডাঙ্গার দর্শনা পৌরসভায় ভিজিএফ কার্ডধারীদের নগত অর্থ বিতরণ চুয়াডাঙ্গায় পূর্ব বিরোধের জেরে আ’লীগ কর্মী নজরুলকে কুপিয়ে জখম, আটক-১ ঝিনাইদহে বাম জোটের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

আলমডাঙ্গা উপজেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র সরকারি প্রকল্প কিশোর-কিশোরী ক্লাবের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

হাফিজুর রহমান :

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় আওতাধীন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কতৃক বাস্তাবায়নধীনে মাধ্যমে প্রতিটি জেলা, উপজেলার প্রত্যকটি পৌরসভা ও ইউনিয়নে ১ টি করে সরকারী কিশোর-কিশোরী ক্লাব চালু আছে। আবার, আগামী ৪- ই ফেব্রুয়ারি ২০২১ তারিখ থেকে বাংলাদেশের সব ক্লাব স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূণরায় চালু করেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার। দিনে দিনে এগিয়ে যাচ্ছে কিশোর-কিশোরী ক্লাব। সরকারি প্রকল্পের আওতায় মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর সকল জেলায় ২ জন করে ক্লাবের জেলা ফিল্ড সুপারভাইজারদের পরিদর্শন ও তদারকির জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সারা বাংলাদেশে এই পর্যন্ত সরকার ৪,৮৮৩ টি কিশোর-কিশোরী ক্লাব সরকারিভাবে চালু করেছে। অন্যন্য জেলার মত চুয়াডাঙ্গা জেলায় কিশোর-কিশোরী ক্লাব ৪৫ টি প্রতিষ্ঠা করা হয়। চার উপজেলায় প্রতিটি ইউনিয়নে ১ টি করে সরকারি কিশোর-কিশোরী ক্লাব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। তার-ই ধারাবাহিকতায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টার সময় চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাংগা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিটন আলী’র সভাপতিত্বে সংগীত ও আবৃতি পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। জানা গেছে, ১৪ টা সংগীত ও ১১টি আবৃতি শিক্ষক পদের বিপরীতে মোট ৫১ জন ক্যান্ডিডেট পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করে। জানা গেছে, আলমডাংগা উপজেলার ইউএনও সম্মেলন কক্ষে এই নিয়োগ পরিক্ষায় অনুষ্ঠিত হয়। প্রাক্টিক্যাল ও ভাইভা পরীক্ষায় উপস্থিত ছিলেন ইউএনও লিটন আলী, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার ও নিয়গ পরীক্ষার সদস্য সচীব মাকসুরা জান্নাত কিশোর-কিশোরী ক্লাবের জেলা ফিল্ড সুপারভাইজার এম কাবিল উদ্দিন, যুব উন্নয়ন অফিসার সহ উপজেলার সব অফিসের প্রধানগণ। সরকারি ক্লাব গুলার উপদেষ্টা হিসাবে আছেন স্থানীয় ১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব মোঃ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। উপজেলা ক্লাবের সভাপতি হিসাবে আছেন প্রতি উপজেলার ইউএনও মহদয় এবং ক্লাব ব্যবস্থাপনা কমিটির কায্যকরী সদস্য আছেন প্রতিটি জেলার ফিল্ড সুপারভাইজারগণ। সরকারি নিয়ম নীতিমালা মেনে প্রাক্টিক্যাল পরীক্ষা ও ভাইবার মাধ্যমে ১৪ জন সংগীত এবং ১১ জন আবৃতি শিক্ষক পদে নিয়গ প্রদান করা হবে।

এছাড়াও ক্লাব ভিত্তিক বাল্যবিয়ের বিরদ্ধে সমাজের মানুষের মাঝে জনসচেতন সৃস্টি করছে এই কিশোর কিশোরী ক্লাব। বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এগিয়ে আছে কিশোর কিশোরী ক্লাব। শেখ হাসিনা সরকারের ২০৪১ সালের ভিশন বাস্তবায়নে, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সব দিক থেকে এগিয়ে আছে এই কিশোর কিশোরী ক্লাব। শুধু তাই নয়, সমাজ ও রাষ্ট্রের উন্নয়নমূলক কাজে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে সে আলোচনা করা হয় দেশের প্রতিটি ক্লাবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব অগ্রাধিকার প্রকল্প এই কিশোর কিশোরী ক্লাব। সরাসরি মানণীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পের দায়িত্ব নিয়েছে। কিশোর-কিশোরীদের কথা চিন্তা করে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ক্লাব প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। কিশোর কিশোরী ক্লাব বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, এবং কিশোর অপরাধ, কিশোরী ইভটিজিং, মাদক, যৌতুক থেকে কিভাবে কিশোর-কিশোরীদের বিরত রাখা যায় সেই বিষয়ে সব সময় কাজ করছে। ক্লাবের বিশেষ লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হল ফিল্ডে বাল্যবিয়ে ঠেকানো। প্রতিটি জেলার ফিল্ড সুপারভাইজারগণ কিশোর -কিশোরীদের মনোবল বাড়ানোর জন্য নিয়মিত কিশোর-কিশোরীদের তদারকি করছে সরাসরি। এই বিষয়ে আলমডাংগা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অফিসার মাকসুরা জান্নাত স্যার বলেন, আমরা সরকারী নির্দেশনা পেয়েছি এবং আমার জেলার সকল ক্লাবের কার্যক্রম চালু করে দিয়েছি। কিছু শিক্ষক সংকট আছে। আজকের এই তুমুল প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাংগা উপজেলায় মোট ১৬টি সরকারি কিশোর-কিশোরী ক্লাব আছে। এবার ২৪ টি শূন্য পদ গুলি পূরন হবে। ইতিমধ্যে আমরা করোনার ভিতর ৫ টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছি কিশোর কিশোরী ক্লাবের মাধ্যমে এবং বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মেয়াদে অপরাধীদের জেল ও জরিমানা করা হয়েছে। আমাদের মাঠ পর্যায়ের কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে নিরলাসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা কিশোর-কিশোরী ক্লাবের জেলা ফিল্ড সুপারভাইজার এম. কাবিল উদ্দিন। ফিল্ড সুপারভাইজার আরও বলেন, তৃণমুল পর্যায়ে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করতে কিশোর -কিশোরী ক্লাব বদ্ধপরিকর। বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করতে সরকার ন্যাশনাল হেল্প লাইন নং ১০৯ এর ব্যবস্থা করেছেন। কল করতে কোন টাকা লাগে না। বাল্যবিবাহ যেখানেই ঘটুক না কেন নিকটস্থ উপজেলা প্রশাসন অথবা ১০৯ নাম্বারে অথবা জেলা সুপারভাইজারদের জানাতে পারবেন। দেশ, জাতি এবং বাল্যবিবাহমুক্ত সমাজ গঠনে কিশোর-কিশোরী ক্লাব সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।পরীক্ষায় ফিল্ড পরিদর্শক হিসাবে ছিলেন এম কাবিল উদ্দিন, প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী এবং ক্লাবের সংগীত শিক্ষক মেফতাহুল ইসলাম স্বপন,জেন্ডার প্রমটার সানজিদা রহমান, রনি কুমার বিশ্বাস তুষার আহমেদ সহ আবৃতি শিক্ষক আশিকুজ্জামান আসাদ।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT