সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৬:৩৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম
‘তলাবিহীন ঝুড়ি’র অপবাদখ্যাত আমাদের মাতৃভূমি, আজ এক ‘লড়াকু বাংলাদেশ’ চুয়াডাঙ্গার মা নার্সিংহোমে সিজারিয়ানের পর সদর হাসপাতালে নবজাতকের মৃত্যু চুয়াডাঙ্গার কার্পাসডাঙ্গায় শাফা কেমিক্যালে অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে তৈরী হচ্ছে ভেজাল ডিটারজেন্ট তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনের মামলা ১৮ বিক্ষোভকারীর রক্তে ভিজল মিয়ানমারের রাজপথ ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডুতে ৭৫ বিঘা পানবরজ আগুনে পুড়ে ছাই করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে বাটাগুরবাসকা একটি কচ্ছপ ডিম পেড়েছে ২৭টি চুয়াডাঙ্গার কার্পাসডাঙ্গায় বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতি ছাড়াই তৈরী হচ্ছে ভেজাল ডিটারজেন্ট বিপুল ভোটে শৈলকুপায় নৌকা প্রার্থীর বিজয় ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডু পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিরগণের দায়িক্ত হস্তান্তর ও গ্রহণ অনুষ্ঠিত 

প্রজাতন্ত্রের কোনো ব্যক্তি অনিয়ম-দুর্নীতির ঊর্ধ্বে নয় :  কাদের

প্রজাতন্ত্রের কোনো ব্যক্তি অনিয়ম ও দুর্নীতির ঊর্ধ্বে নয় উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘যেকোনো অনিয়মের বিরুদ্ধে তদন্ত করার দায়িত্ব দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আছে। নির্বাচন কমিশন চাপমুক্ত থেকে নিজস্ব আইনগত ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব অনুযায়ী অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করতে পারে।’ ১ ফেব্রুয়ারি, সোমবার সকালে সচিবালয়ে তার দপ্তরে এক ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের জানান, দেশের ৪২ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠনের বিষয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে যে অভিযোগপত্র দিয়েছেন সেই প্রসঙ্গে বিজ্ঞজনেরা মনে করেন, সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের দাবি অযৌক্তিক। এমন দাবি করার মানে রাষ্ট্রের অভিভাবক, সংবিধানের রক্ষক রাষ্ট্রপতিকে বিব্রত করা।

সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, ‘যারা মনে করেন নির্বাচন কমিশনের কারণে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস হয়ে গেছে, তাদের এ অভিযোগ নির্বাচন নিয়ে অতীতের অভিজ্ঞতায় প্রমাণ করে না। কোনো অভিযোগ ব্যক্তি বিশেষের বিরুদ্ধে থাকতেই পারে। ব্যক্তি বিশেষ অনিয়ম করলে দুদক তদন্ত করতে পারে, কিন্তু এ নিয়ে গোটা নির্বাচন ব্যবস্থাকে দায়ী করা অপ্রত্যাশিত ও অযৌক্তিক।’

চলমান স্থানীয় সরকার নির্বাচন বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এ সব নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে আওয়ামী লীগের অবস্থান কঠোর।’

অনেক স্থানে বিদ্রোহীরা সরে দাঁড়ালেও কোথাও কোথাও তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দেখা যাচ্ছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘স্থানীয় সরকার নির্বাচনবিষয়ক দলীয় মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলে তা দলের শৃঙ্খলা লঙ্ঘন বলে ধরে নেওয়া হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জানান, যারা দলের সিদ্ধান্ত মানবেন, ভবিষ্যতে বিভিন্নভাবে তাদের মূল্যায়ন করা হবে। আর যারা দলের সিদ্ধান্ত মানবেন না, তারা ভবিষ্যতে মনোনয়ন তো পাবেনই না, উপরন্তু দলের কোনো সম্মানজনক পদও পাবেন না। ওবায়দুল কাদের দলের মনোনীত প্রার্থীদের বিজয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

দলের বিষয়ে কারো কোনো অভিযোগ থাকলে, তা অভ্যন্তরীণ ফোরামে আলোচনা করার নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দলীয় ফোরামের বাইরে গিয়ে কোনো ধরনের বক্তব্য, বিবৃতি শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ হিসেবে বিবেচিত হবে।’

দলের ইমেজ নষ্ট হয় এমন বক্তব্য থেকে বিরত থাকার হুঁশিয়ারি দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দলীয় শৃঙ্খলা ও ঐক্যের বিষয়ে অধিকতর কঠোর অবস্থানে রয়েছেন।’

সূত্র: খোলাকাগজ

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT