বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

জীবননগরে করতোয়া নদীর পুনঃখনন কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমপি টগর

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি:

জীবননগরে করতোয়া নদী পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের বাস্তবায়নে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে খনন কাজ সম্পন্ন করা হবে।  রোববার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী মো. আলী আজগার টগর খনন কাজের উদ্বোধন করেন।
করতোয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্তরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য হাজী মো. আলী আজগার টগর বলেন, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশে পদ্মা সেতুর মতো দীর্ঘ গুরুত্বপূর্ন সেতু বাস্তবায়িত হয়েছে। আজকে বাংলাদেশে স্যাটালাইট সিঙ্গাপুর থেকে ভাড়া করে ব্যবহার করতাম। সেই বঙ্গবন্ধু স্যাটালাইট আমরা তৈরী করে পৃথীবির কক্ষ পথে পতপত করে ঘুরছে। আজকে পদ্মা সেতু হচ্ছে। আজকে মেট্রো রেল হচ্ছে। আজকে টানেল হচ্ছে। আমরা আমরা যখন হংকং ও চায়নায় যায় তখন আমরা গাড়ী নিয়ে ওই সতল ট্যানেলের নিজ দিয়ে যাতায়াত করি। আজকে বাংলাদেশে কর্নফুলী ট্যানেল তৈরী হচ্ছে। চট্রোগ্রাম ও কক্সবাজার যাবো পতেঙ্গার পাশদিয়ে ট্যানেল দিয়ে সোজা কক্সবাজার চলে যাবো। আজকে মেগা প্রকল্প রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুত কেন্দ্র তৈরী হচ্ছে। দেশে প্রধান মন্ত্রীর নেতৃত্বে যে সকল কর্মযজ্ঞ চলছে তা এক মাত্র সম্ভব হয়েছে প্রধান মন্ত্রীর শেখ হাসিনার জন্য। দেশে এ সকল মেগা প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে কৃষি যোগাযোগ, বিদ্যুতসহ অর্থনৈতিক ভাবে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ হবে।
তিনি আরো বলেন, এক সময় খাল খনন করতে হবে আমরা শুনতাম কিন্তু নদী খনন করতে হবে তা বাস্তবে রুপদিলো আমার নেত্রী শেখ হাসিনা। আমি আরো জানি আমাদের ভৈরব নদী থনন কাজ শুরু হবে। চলতি বছরে না হলেও আগামী বছরে খনন প্রক্রিয়া এ খনন কাজ শুরু হতে পারে। এর ফলে আমাদের করতোয়া নদী নাব্য হারিয়ে মরা খালে পরিণত হয়েছে। আষাঢ় মাসেও এই নদীতে পানি থাকে না। ফলে এলাকার কৃষকদের চাষাবাদ ব্যাহত হচ্ছে। হারিয়ে গেছে দেশি প্রজাতির সুস্বাদু মাছ। খনন কাজ শেষ হলে নদীর পানি সেচসহ অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা যাবে।
চুয়াডাঙ্গার পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীনে ৬৪ জেলার ছোট নদী, খাল এবং জলাশয় পুনঃখনন প্রকল্পের (১ম পর্যায়) আওতায় জীবননগর উপজেলার করতোয়া নদী পুনঃখনন কাজ শুরু করা হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় করতোয়া নদীর সাড়ে ৭ কিলোমিটার এলাকা খনন কাজ করা হবে। এতে নাব্য সংকট দূর করতে নদীর গভীরতা আরো ১১ ফুট বাড়ানো হবে। এ কাজ শেষ করতে সময় লাগবে চলতি বছরের ২৮ ডিসেম্বর।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে খননকাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- পানি উন্নয়ন বোর্ডের ফরিদপুর পশ্চিমাঞ্চলের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবদুল হেকিম, কুষ্টিয়া সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান, জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিম লিংকন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) আবু রাসেল, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এএসআই) উপ-পরিচালক জামিল সিদ্দিক, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মোর্তূজা, জীবননগর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ অমল প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি