রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:০৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম
তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনের মামলা ১৮ বিক্ষোভকারীর রক্তে ভিজল মিয়ানমারের রাজপথ ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডুতে ৭৫ বিঘা পানবরজ আগুনে পুড়ে ছাই করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে বাটাগুরবাসকা একটি কচ্ছপ ডিম পেড়েছে ২৭টি চুয়াডাঙ্গার কার্পাসডাঙ্গায় শাফা ক্যামিক্যাল কোং প্রতিষ্ঠানে জরিমানা বিপুল ভোটে শৈলকুপায় নৌকা প্রার্থীর বিজয় ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডু পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিরগণের দায়িক্ত হস্তান্তর ও গ্রহণ অনুষ্ঠিত  ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে প্রার্থীর সমর্থনে বোতলে মোড়ানো শরীর -অবশেষে সাজা ঝিনাইদহ হরিণাকুণ্ডুতে বাল্যবিয়ে দেওয়ার দায়ে কনের সম্পর্কে দাদা ও চাচাকে ৬ মাসের কারাদণ্ড ঝিনাইদহে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী নিহত

চুয়াডাঙ্গা বড় বাজারের জনতা ফার্মেসীর ২ কর্মচারীর বাকবিতন্ডা: দিপুর ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত জখম সলক

ষ্টাফ রিপোর্টার:

চুয়াডাঙ্গার বড় বাজারের জনতা ফার্মেসীর কর্মচারী মাসুদ রানা ওরফে সলককে ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। রোববার দুপুরে ফার্মেসীর অভ্যন্তরেই দিপু নামের আরেক কর্মচারী তাকে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে বলে মাসুদ রানা ওরফে সলকের অভিযোগ। আহত সলক (৩০) চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ইসলাম পাড়ার মৃত তারা মিয়ার ছেলে। তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে।
ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে হাসপাতালে আহত সলক অভিযোগ করে বলেন, চুয়াডাঙ্গা বড় বাজারে অবস্থিত জনতা ফার্মেসীতে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছি। ফার্মেসীর আরেক কর্মচারী দিপু খুবই উগ্র মেজাজের। খুটিনাটি বিষয় নিয়ে দিপু প্রায় আমার সাথে খারাপ আচরণ করে থাকে। ফার্মেসীর আরেক কর্মচারী জাকির ক’দিন ধরে ফার্মেসীতে আসছে না। এ নিয়ে আমি দিপুর সাথে আলাপ করলে সে আমার সাখে খারাপ আচরণ করেতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে ফার্মেসীতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে দিপু আমার উপর হামলে পড়ে এবং ছুরি দিয়ে এলোপাথাড়ী আঘাত করতে থাকে। আমি রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়লে অন্যান্য কর্মচারীরা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়।
সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের বর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সোহরাব হোসেন বলেন, মাসুদ রানার মাথা ও দুই হাতে ধারালো কিছু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। ক্ষতস্থানে বেশকিছু সেলাই দিতে হয়েছে। আমরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দিচ্ছি। আহত ব্যক্তির অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।
এদিকে, হাসপাতালে মাসুদ রানা ওরফে সলকের শয্যাপাশে থাকা তার মা মাসুরা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে যে আঘাত করেছে আমি তার উচিৎ বিচার দাবী করছি।
অপরদিকে, ঘটনার সত্যতা শিকার করে জনতা ফার্মেসীর সাহেদ সালাম বলেন, অনাকাঙ্খিত এ ঘটনার জন্য আসলেই আমরা কেউই প্রস্তুত ছিলাম না। যেহেতু বিষয়টি আমাদের নিজেদের মধ্যে সেহেতু আমরা বিষয়টি মিটিয়ে ফেলেছি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT