রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:০৯ পূর্বাহ্ন

চুয়াডাঙ্গায় ১৩৪টি ভুমি ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে জমির কাগজ ও বাড়ীর চাবি প্রদান

ষ্টাফ রিপোর্টার:

মুজিববর্ষ উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ১৩৪টি ভুমি ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে জমির কাগজ ও বাড়ির চাবি প্রদান করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে  শনিবার (২৩ জানুয়ারী) সকাল ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এর আগে জেলা প্রশাসকের সম্বেলন কক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ সাদিকুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার হাবিবুর রহমানের সঞ্চালনায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভুমিহীন ও গৃহহীনদের মাঝে জমির কাগজ ও বাড়ির চাবি প্রদানের সময় অনুভুতির বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ শামসুল আবেদিন খোকন, জেলা আওয়ালীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সিদ্দিকুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোসেন, পদ্মবিলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাস, এনটিভির জেলা প্রতিনিধি অ্যাড. রফিকুল ইসলামসহ ভুমিহীন পরিবারের কয়েকজন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস,অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী আলমগীর হান্নান, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, নেজারাত ডেপুটি কালেক্টর আমজাদ হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভুমি) ইসরাত জাহান।
আশ্রয়ন প্রকল্প-২ আওতায় সারাদেশের ন্যায় চুয়াডাঙ্গা জেলার ৪টি উপজেলায় ১৩৪ পরিবারের মধ্যে বাড়ির চাবি ও ২ শতক জমির কাগজপত্র হস্তান্তর করা হয়। সদর উপজেলায় ৩৪টি, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৫০টি,দামুড়হুদা উপজেলায় ৩২টি এবং জীবননগর উপজেলায় ১৮টি পরিবার রয়েছে। উল্লেখ্য এসব বাড়ীনির্মাণে ব্যায় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা।
মুজিববর্ষ উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় ঘর পাবে ভুমিহীন ও গৃহহীন ১ হাজার ১৩১টি পরিবার। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ১৮৪টি, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২৫২টি, দামুড়হুদা উপজেলায় ৩৫৯টি এবং জীবননগর উপজেলায় ৩৬৬ টি পরিবার। এছাড়াও যার জমি আছে, ঘর নেই এমন পরিবারের জন্য ভুমি মন্ত্রণালয়ের অধীনে ৯ হাজার ৯৫৪টি পরিবারের জন্য বাড়ি নির্মাণকরে দেয়া হবে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৩ হাজার ৬৮১টি পরিবার, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২ হাজার ৯১টি পরিবার ,দামুড়হুদা উপজেলায় ৮৬১টি পরিবার এবং জীবননগর উপজেলায় ৩ হাজার ৩২টি পরিবার রয়েছে।
এছাড়াও চুয়াডাঙ্গায় নিজস্ব অর্থায়নে গৃহ নির্মাণে আগ্রহী জনপ্রতিনিধি,সরকারী কর্মকর্তা ও সমাজের বিশিষ্টজনরা অর্থ সহযোগিতা করে আরো ৩০টি পরিবারকে বাড়ি নির্মাণ করে দিচ্ছেন ।
তারা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি ৪টি,চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগার টগর এমপি ৪টি, জেলা প্রশাসন ১টি, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা ৭টি, মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী ১টি, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মনসুর বাবু ২টি ,মিনিস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান এম.এ. রাজ্জাক খান রাজ ৫টি, মোল্লা মোটরসের স্বত্তাধীকারি সহিদুল হক মোল্লা ৫টি.এবং বিশিষ্ট ঠিকাদার সাইফুল হাসান জোয়ার্দ্দার টোকন ১টি । এর বাইরেও পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সচিব আছিয়া বেগম হাউলি গ্রামে এবং খাদ্য মন্ত্রনালয়ের সচিব ড: মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম বড়শলুয়া গ্রামে ২টি পরিবারকে মুজিববর্ষ উপলক্ষে একটি করে বাড়ি নির্মাণ করে দিয়েছেন।

 

 

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT