মঙ্গলবার, ২৭ Jul ২০২১, ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উত্তর চাঁদপুরে রাস্তা নিয়ে বিরোধে সংঘর্ষঃ থানায় মামলা দায়ের

দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি:

দামুড়হুদা উপজেলা সদরের উত্তর চাঁদপুর বাগানপাড়া গ্রামের রাস্তা নিয়ে বিরোধের জের ধরে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ’ র ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি শুক্রবার (২২ জানুয়ারী) বেলা ৩ টার দিকে ঘটে। এ ঘটনায় আকিবুর রহমান চার জনের নাম উল্লেখ করে দামুড়হুদা মডেল থানার একটি মামলা দায়ের করেন করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার উত্তর চাঁদপুর মৌজায় আর. এস ৭২২ নং খতিয়ান ভূক্ত ১৩৪৫ দাগের ৫ শতক জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ আমার ফুপাতো ভাই আলমগীর সহ তার দুই ভাই বসতবাড়ী নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন। এমতাবস্থায় একই গ্রামের মৃত. মোজাম্মেল মন্ডলের ছেলে শওকত আলী ও শওকত আলীর ছেলে লিটন আলী, আব্দুল মান্নান ও মুন্নাফ আলী আমার ফুপাতো ভাই আলমগীরদের বসত বাড়ির পূর্ব আইলে উওর – দক্ষিণ বরাবর ১২ গুন্ডা জমি জবর দখল করে রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করলে উভয় পক্ষের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়।
উক্ত বিরোধের জের ধরে শওকত, লিটন, আব্দুল মান্নান, ও মুন্নাফ পৃর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ইং ২২/০১/২০১১ তারিখ বেলা অনুমান ০৩:৩০ ঘটিকার সময় হাতে লোহার ধারালাে ডাসা , বাঁশের লাঠি সহ দেশীয় অস্ত্র – সস্তে সজ্জিত হইয়া আলমগীরের বসত বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। আলমগীরের স্ত্রী রুপালী গালাগালি করতে বারন করলে শওকত আলীর ইন্ধনে মুন্নাফ আলীর হাতে থাকা বাঁশেল লাঠি দিয়ে মাথায় মাঝখানে আঘাত করলে মাথায় মারাত্মক ফোলা ও থেতলানো জখম হয়।উক্ত আঘাতে আমার ভাবি রুপালী মাটিতে পড়িয়া গেলে আব্দুল মান্নান ও মুন্নাফ তলপেট সহ শরীরে বিভিন্ন স্থানে লাথিয়ে জখম করা সহ পরনের কাপড় চোপড় টানিয়া শ্লীলতাহানি করে।এসময় আমার ফুপাতো ভাই ইসরাফিলের স্ত্রী পারুল ট্যাকাতে আসলে লিটন, মান্নান, মুন্নাফ লাঠি দিয়ে পারুলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করেন। এঘটনাটি আমার ফুপাতো ভাই ইস্রাফিল আগিয়ে আসালে লিটন আলীর হাতে থাকা ধারালো ডাসা দিয়ে ইস্রাফিল ও আলমগীকে মাখায় আঘাত করার চেষ্টা করলে তা ঠেকানোর চেষ্টা করলে আঘাতটি মাখায় না লেগে ইস্রাফিলের বাম হাতের বৃদ্ধা আঙ্গুল ও আলমগীরের কুনুই কেটে যায়।সেসময় আলমগীরের পকেটে থাকা ইট ভাটা শ্রমিকদের মুজুরীর ১ লক্ষ টাকা লিটন ও মান্নান জোর পূর্বক ছিনিয়ে নেয়।লিটন, মান্নান, মুন্নাফ ও শওকত আলমগীরের বাড়িতে থাকা সাংসারিক বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাংচুর করেন। এসময় আশপাশের প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে জখমকারীদের উদ্ধার করে গ্রামের ইজি বাইক চালক মনিরের গাড়িতে করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। পরে আলমগীর ও ইস্রাফিলের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উভয়কে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আঃ খালেকের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, আকিবুর রহমান বাদি হয়ে চার জন কে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। আসামী আটকে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

Exif_JPEG_420

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT