শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
ঝড়-বৃষ্টিতে ম্লান হতে পারে ঈদ আনন্দ ঈদ উদযাপন যেন সংক্রমণ বাড়ার উপলক্ষ না হয়: প্রধানমন্ত্রী মেহেরপুরের গাংনীতে মাংসের দােকান উচ্ছেদ করলেন মেয়র আহম্মেদ আলী ফিলিস্তিনিদের উপর হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন গাংনীতে দােকানদারের হামলায় বাবা-মেয়ে আহত ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে বজ্রপাতে গৃহবধু শেফালীর মৃত্যু কুষ্টিয়া মিরপুর থানা পরিদর্শন করলেন পুলিশ সুপার খাইরুল আলম মুজিবনগরে সিডিপি‘র স্পান্সার শিশুদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী উপহার প্রদান গাংনীতে খাদ্য অনপোযুগী পঁচা চাল নিয়ে চালবাজি, মােটরশ্রমিকদের তােপের মুখে চাল বিতরণ বন্ধ চুয়াডাঙ্গায় ২১ বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী প্রদান

চুয়াডাঙ্গায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনকালে এমপি ছেলুন

ষ্টাফ রিপোর্টার:

বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে সকল গৃহহীনকে পর্যাক্রমে গৃহ নিমার্ণ করে দিচ্ছে সরকার। দেশে আর কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না। কথাগুলো বলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়াদ্দার ছেলুন এমপি।  শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় হাতিকাটা আবাসনে (তালতলা মৌজার খাস খতিয়ান ভুক্ত ২৯৫৬ নং দাগে) নির্মিত মুজিব শতবার্ষিকী উপলক্ষে ভুমিহীন ও গৃহহীনদের ঘর নির্মান কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনকালে একথা বলেন তিনি ।
এ সময় তিনি আরও বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান আমাদের শুধু স্বাধীনতা দেননি, তিনি সুখি-সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলা গড়ার লক্ষে কাজ শুরু করেছিলেন । কিন্তু ৭১ সালের পরাজিত শক্তি ৭৫’র কালো রাতে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে হত্যা করে। জাতীয় ৪ নেতা ও ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণ কওে তিনি বলেন, পাকিস্থান শাসনামলে ২৪ বছরের মধ্যে সাড়ে ১৩ বছর জেল খেটেছেন বঙ্গবন্ধু । তিনি বেঁচে থাকলে অনেক আগেই এ দেশ উন্নত দেশে পরিনত হতো । বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতে কার্যকর পরিকল্পনা প্রনয়ন করে যাচ্ছেন তাঁরই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।
পরিদর্শনকালে তিনি স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশের ন্যায় পর্যায়ক্রমে চুয়াডাঙ্গা জেলায় ১ হাজার ১শ’ ৩১ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসিত করার কার্যক্রম শুরু করেছেন । তার মধ্যে ১৩৪টি ঘর ২০ জানুয়ারীর মধ্যে ভুমিহীন ও গৃহহীনদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে । মাথাপিছু ঘর প্রতি ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা খরচ করে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন সরকার। এতে ১৩৪টি ঘরে খরচ পড়ছে ২২ কোটি ৯১ লাখ ৪ হাজার টাকা। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৩৪ টি, আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৫০টি ,দামুড়হুদা উপজেলায় ৩২ টি ও জীবননগর উপজেলায় ১৮ টি ঘর রয়েছে।
পরির্দশনকালে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, মুজিব শতবার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন দেশে কোনো ভুমিহীন ও গৃহহীন থাকবে না। এ উপলক্ষে প্রাথমিকভাবে আমরা ১ হাজার ১৩১ জনের বাছাই করেছি। তার মধ্যে ১৩৪ ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে ২০ জানুয়ারী মধ্যে ঘর হস্তান্তর হবে। বাকীরা পর্যায়ক্রমে ঘর পাবেন এবং যাদের জমি আছে ঘর নাই, তাদেরকে ওই জমিতে ঘর নির্মাণ করে দেয়া হবে।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- চুয়াডাঙ্গা সদর নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদিকুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র জাহাঙ্গীর আলম খোকন, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গরীব রুহানী মাসুম, আলুকদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইসলাম উদ্দীন, সহকারী প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম, পৌর ভুমি কর্মকর্তা আতিকুল হক ও আলুকদিয়া ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাবলুর রহমান।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT