সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:০২ অপরাহ্ন

শিরোনাম

চুয়াডাঙ্গায় স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে স্ত্রীর মৃত্যু

ষ্টাফ রিপোর্টার:

চুয়াডাঙ্গায় উম্মে সালমা নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।  বুধবার সন্ধায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত উম্মে সালমা (৫৬) চুয়াডাঙ্গা শহরতলীর দৌলতদিয়াড় গ্রামের আলতাফ হোসেনের স্ত্রী ও মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি দর্শনা জোনাল অফিসের বিলিং সুপারভাইজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কর্মস্থল দর্শনা থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে চুয়াডাঙ্গা-দর্শনা সড়কের ভিমরুল্লাহ নতুন জেলখানার নিকট গতিরোধক পার হওয়ার সময় চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে পড়ে আহত হন তিনি। সেখান থেকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করার পর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল বুধবার সন্ধায় একটি মোটরসাইকেলযোগে দু’জন চুয়াডাঙ্গা শহরের অভিমুখে যাচ্ছিলো। এসময় নতুন জেলখানার নিকট পৌছালে গতিরোধক পার হলে ঝাকুনিতে অসাবধানতায় পিছন থেকে পড়ে যান এক নারী। পরে স্থানীয় ব্যক্তিরা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়।
নিহত উম্মে সালমার স্বামী আলতাফ হোসেন বলেন, আমি ও আমার স্ত্রী মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি,চুয়াডাঙ্গা জোনাল অফিসের দর্শনা শাখায় কর্মরত। প্রতিদিনের ন্যায় অফিসের কাজ শেষে দুজন মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিলাম। এসময় নতুন জেলখানার নিকট পৌছালে সামনে থাকা স্পীড বেকারের ঝাকুনিতে আমার স্ত্রী মোটরসাইকেল থেকে সড়কের পাকাস্থানে আছড়ে পড়ে যায়। পরে স্থানীয় ব্যক্তিদের সহযোগীতায় আমার স্ত্রীকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ৮ টার দিকে উম্মে সালমার মৃত্যু হয়। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাকিল আরসালান বলেন, মাথায় আঘাতের কারণে উম্মে সালমা মৃত্যু হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আবু জিহাদ খান বলেন, শহরের নতুন জেলখানার অদূরে স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে উম্মে সালমার মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ সুরতাহাল সম্পন্ন করা হয়েছে। পরিবারের আবেদনের উপর নির্ভর করছে ময়নাতদন্ত হবে কিনা। আবেদন করলে ময়নাতদন্ত ছাড়ায় উম্মে সালমা খাতুনের মরদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি