বৃহস্পতিবার, ২৯ Jul ২০২১, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ২০০ মিটার সুড়ঙ্গের সন্ধান

ছবি- সংগৃহীত

 কলকাতাভিত্তিক একটি পত্রিকার এক প্রতিবেদনে প্রকাশ, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে প্রায় ২০০ মিটার সুড়ঙ্গের সন্ধান পেয়েছে ভারতীয় পুলিশ। অপহৃত এক ব্যক্তিকে উদ্ধারে নেমে আসামের করিমগঞ্জ জেলার বালিয়া এলাকায় গত পরশু শুক্রবার এ সুড়ঙ্গের সন্ধান মিলেছে।
প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাচার ও অপহরণসহ আন্তর্জাতিক চোরাচালানে সুড়ঙ্গটি ব্যবহার হয় বলে তথ্য পেয়েছে করিমগঞ্জ জেলা পুলিশ।

ছবি- সংগৃহীত

গত ২৭ ডিসেম্বর করিমগঞ্জের নিলামবাজার থানার শিলুয়া গ্রামের বাসিন্দা দিলোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তি অপহরণের শিকার হন। পরে তার পরিবারের কাছে বাংলাদেশী নম্বর থেকে ফোন করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে অপহরণকারীরা। দিলোয়ারের পরিবার টাকা দিতে রাজী হলে অপহরণকারীরা কিছু নির্দেশনা দেয় এবং পার্শ্ববর্তী নয়া গ্রামের এলিমুদ্দিনের কাছে টাকা দিতে বলে। পুলিশ এলিমুদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে।
তবে, ভারতীয় পুলিশ কর্তৃক এলিমুদ্দিনকে গ্রেফতার খবরটি আগে-ভাগেই জেনে ফেলে ওপারের দুষ্কৃতকারীরা। এ অবস্থায়, নিশ্চিত বিপদ বুঝতে পেরে দুষ্কৃতকারীরা ছেড়ে দেয় তাদের মুক্তিপণের মোটা অংকের টাকা আঁদায়ের শিকার জিম্মি করে রাখা ‘দিলোয়ার হোসেন’কে। দিলোয়ার হোসেন ছাড়া পেয়ে পুলিশকে সব ঘটনা জানান। পুলিশও তাজ্জব হয়ে যায়। এই জঙ্গলে ২০০ মিটার লম্বা সুড়ঙ্গপথের গোপন খবরটি তাদের জানাই ছিল না।
এরপর গত পরশু শুক্রবার ইংরেজী নববর্ষের প্রথম দিন ০১ জানুয়ারী’২০২১ তারিখ করিমগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিশেষ টিম ভারতীয় বালিয়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। সেখানে ২০০ মিটারেরও বেশী দীর্ঘ একটি সুড়ঙ্গের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ।
করিমগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার ময়ঙ্ককুমার ঝাঁ আনন্দবাজার পত্রিকাকে জানান, সুড়ঙ্গের স্থানটি জঙ্গলঘেরা। উপরে কাঁটাতারের বেড়া। এর নিচে সুড়ঙ্গ। সুড়ঙ্গ মুখ দেখে মনে হবে সাধারণ গর্ত। দিলোয়ার জানিয়েছে, বাংলাদেশের সিলেট প্রান্তেও সুড়ঙ্গমুখে এমন সাধারণ গর্তের মতো চেহারা। ওই পথে দুষ্কৃতকারীরা নিয়মিত চলাচল করে।

করিমগঞ্জ’র পুলিশ সুপার আরও জানিয়েছেন, তাৎক্ষণিক সুড়ঙ্গের ভারত অংশের মুখ বন্ধ করতে বিএসএফকে বলা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বিএসএফের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গেও তিনি যোগাযোগ রাখছেন। এরই মধ্যে এ ঘটনায় ভারতীয় বেশ ক’একজনকে গ্রেফতারও করেছে তারা। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে ভারতীয় পুলিশ।

(সংগৃহীত)

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT