শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৬:৫০ অপরাহ্ন

শিরোনাম
বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মনে প্রাণে ধারণ করি- জুয়েল চেয়ারম্যান কুষ্টিয়ায় সেফটি ট্যাংকের ভিতরে ২ নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ইফতার বিতরণ মেহেরপুরের আমঝুপি গ্রামে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু চুয়াডাঙ্গায় গাঁজাসহ আটক ৩, ভ্রাম্যমাণ আদালতে জেল-জরিমানা ঝিনাইদহে ভারত ফেরত ১৪৭ বাংলাদেশী হোম কোয়ারেন্টাইনে কর্মহীন পরিবারের বাড়ীতে বাড়ীতে ইফতার সামগ্রী পৌঁছে দিলেন একদল যুবক চুয়াডাঙ্গার দর্শনা পৌরসভায় ভিজিএফ কার্ডধারীদের নগত অর্থ বিতরণ চুয়াডাঙ্গায় পূর্ব বিরোধের জেরে আ’লীগ কর্মী নজরুলকে কুপিয়ে জখম, আটক-১ ঝিনাইদহে বাম জোটের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

সেবা গ্রহীতাদের পরিতৃপ্তির প্রার্থনায় আমার অনাবিল সুখ ও চলার পথের পাথেয়

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মৌমিতা পারভীন

আহসান আলম:

কর্ম এলাকার মানুষের জন্য দ্রুততম সময়ে সহজে সেবা পৌঁছে দিতে চাই। সমাজের সবচেয়ে অবহেলিত, যারা উন্ন্য়নের শ্রোতাধারায় আসতে পারেনি, সমাজসেবা অধিদপ্তরের বিভিন্ন কর্মসূচীতে তাদেরকে অর্ন্তভূক্ত করে সেবাদানের মাধ্যমে তাদের জীবনে আশার আলো ফোটাতে চাই। কথাগুলো বলছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মৌমিতা পারভীন। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার সমাজসেবা অফিসের মাধ্যমে মানুষ কি কি সেবা পচ্ছে এবং ভবিষ্যতে পাবে এ বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলার সময় তিনি কথাগুলো বলছিলেন। সে সময় তিনি আরও বলেন, ‘সমাজসেবা যেজন করে, পাঁ বাড়ালেই পূণ্য বাড়ে’ এটা প্রতিনিয়ত অনুধাবন করি এক স্বর্গীয় প্রশান্তির মাধ্যমে। যা আমার নিত্যদিনের কাজের মধ্যে খুঁজে পাই। সেবা গ্রহীতারা আমার থেকে ভালো বলতে পারবে আমি কতটুকু তাদের কাছে যেতে পেরেছি। সেবা গ্রহীতার ভালোই জানে তারা চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসে এসে কোন না কোনভাবে উপকৃত হবেন। তাদের সমস্যা কিছুটা হলেও লাঘব হবে। এটাই আমার শান্তি। আর সেবা গ্রহীতাদের পরিতৃপ্তির প্রার্থনায় আমার অনাবিল সুখ ও চলার পথের পাথেয়।
‘মৌমিতা পারভিন’ ভালো কাজের অঙ্গীকার নিয়ে এগিয়ে চলা একটি নাম। সমাজের দরিদ্র, অসহায়, অসুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষ গুলোর কথা মনের মাঝে ধারণ করে তাদের সেই অসুবিধা গুলো বিচক্ষণতার সাথে পুরণ করা ব্যাক্তির নামই ‘মৌমিতা পারভিন’। হ্যা, তিনি আর কেউ না, তিনি চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ডিঙ্গেদহ মানিকদিহি গ্রামের মকবুল হোসেন ও রেহেনা পারভিনের একমাত্র কন্যা। দুই ভাইবোনের মধ্যে তিনি ছোট এবং পরিবারের অতি আদরের হলেও একটুও অহঙ্কার নেই তার মধ্যে। হাস্যজ্বল ও সদালাপি মৌমিতা পারভীন ২০১৮ সালের ২৮ মে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার হিসাবে যোদগান করেন। সেই থেকে কাজই তার একমাত্র ঠিকানা এবং হাসিমুখে কাজকে বরণ করে সকাল থেকে অফিস ছুটি হওয়ার আগ পর্যন্ত একটানা কাজের মঝেই ডুবে থাকেন তিনি। ভালো কাজ করা জন্য ইতোমধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার সকলের মনেই স্থান করে নিয়েছেন তিনি। বিশ্বের সব দেশসহ বাংলাদেশে যখন করোনা মহামারি আমার ধারণ করেছে। করোনার সংক্রমণ রোধে মানুষ যখন ঘরবন্দী। তখন নিজে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কথা না ভেবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অভুক্ত মানুষগুলোর জন্য খাবার ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী নিয়ে ছুটে গেছেন তাদের বাড়িতে। শুধুকি তাই? সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসে সেবা নিতে এসে কাইকেই নিরাশ হয়ে ফিরতে হয়নি। প্রথমবার না পারলেও পরেরবার তাকে সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে সেবা প্রদান করার চেষ্টা করেছেন। সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসে আসা এমনও মানুষ আছেন, যারা গাড়ি ভাড়ার টাকার অভাবে বাড়ি যেতে না পেরে অফিসের সামনে বসে থেকেছেন। খোঁজ খবর নিয়ে গোপণে নিজের কাছ থেকে টাকা দিয়ে ওই মানুষটিকে বাড়ি যাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। তিনি চুয়াডাঙ্গায় যোগদানের পর ভিক্ষুকদের পূণর্বাসনের জন্য ৪৫ টা ছাগল বিতরণ, হুইল চেয়ার বিতরণ, বয়স্ক ভাতার কার্ড, প্রতিবন্ধি শিক্ষা ভাতা, বিধাবা ভাতা ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠি, দলিত, হরিজন ও বেদে শিক্ষার্তীদের উপবৃত্তির প্রদাণ করা হয়েছে। এছাড়াও সমাজসেবা অধিদপ্তরের ৪৫ টা কর্মসূচির ভিতর প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে এককালীন অনুদান প্রদান করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বলেন, অসুস্থতাজনিক কারনে দীর্ঘদিন ধরে হাটাচলা করতে সদস্যা হচ্ছিলো। সদর উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে হুইল চেয়ারের জন্য একটা আবেদন করেছিলাম। সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মৌমিতা পারভীন সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে অতিদ্রুত আমাকে একটা হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা করেছেন । বর্তমানে আমি আমার বাড়িতে একটু ঘুরে বেড়াতে পারি।

 

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT