শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০৭:৫৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
ঝড়-বৃষ্টিতে ম্লান হতে পারে ঈদ আনন্দ ঈদ উদযাপন যেন সংক্রমণ বাড়ার উপলক্ষ না হয়: প্রধানমন্ত্রী মেহেরপুরের গাংনীতে মাংসের দােকান উচ্ছেদ করলেন মেয়র আহম্মেদ আলী ফিলিস্তিনিদের উপর হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন গাংনীতে দােকানদারের হামলায় বাবা-মেয়ে আহত ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে বজ্রপাতে গৃহবধু শেফালীর মৃত্যু কুষ্টিয়া মিরপুর থানা পরিদর্শন করলেন পুলিশ সুপার খাইরুল আলম মুজিবনগরে সিডিপি‘র স্পান্সার শিশুদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী উপহার প্রদান গাংনীতে খাদ্য অনপোযুগী পঁচা চাল নিয়ে চালবাজি, মােটরশ্রমিকদের তােপের মুখে চাল বিতরণ বন্ধ চুয়াডাঙ্গায় ২১ বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী প্রদান

চুয়াডাঙ্গায় বৃদ্ধা মা’কে বাড়ি থেকে বের করে দিলো ছেলেরা : ভুল স্বীকার করে মা’কে জড়িয়ে ধরে কান্নাকাটি

নিজস্ব প্রতিনিধি:
“আমাকে আমার ছেলেরা বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে” একজন বৃদ্ধা মায়ের কান্না ভরা এ ধরনের আকুতিতে চুয়াডাঙ্গা সদরের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তার শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান সৃষ্টি করে তার পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দিয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ আগষ্ট) বিকাল সাড়ে ৩ টার সময় চুয়াডাঙ্গা পৌরসভাধীন সবুজ পাড়ার খোকা শেখের স্ত্রী বৃদ্ধ মা রাজিয়া বেগম (৮০)।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান এর অফিস কক্ষে রুমে এসে কান্নাকাটি করে বলেন তার ছেলেরা বাড়িতে উঠতে দিচ্ছে না। তারা খাবারও দিচ্ছে না। এই বৃদ্ধ মায়ের এই আকুতি চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসিকে বেশ আবেগ তাড়িত করে। সেই বৃদ্ধ মায়ের কথা অত্যন্ত ধৈর্য সহকারে শুনেন এবং তাৎক্ষণিকভাবে বিকাল ৫ টার সময় সদর থানার এসআই আশিকুল ইসলাম সহ সেই বৃদ্ধা মাকে তার বাড়িতে পৌঁছে দেই। তার চার ছেলে এবং দুই মেয়ে। এ সময় তার সন্তানাদি সহ পরিবারের সকল সদস্যের সাথে নিবিড় ভাবে আলোচনা করেন।


এই বৃদ্ধ বয়সে মায়ের প্রতি এ ধরনের সহিংসতা কেন? তারা কি কখনো এই বয়সে উপনীত হবেনা – এ প্রশ্ন ছুড়ে দেই পরিবারের প্রতিটি সদস্যের প্রতি। তার পরিবারের সকল সদস্যের সাথে মতবিনিময়ের এক পর্যায়ে সকলে তাদের ভুল স্বীকার করে এবং তাদের মাকে গ্রহণ করে জড়িয়ে ধরে কান্নাকাটি করেন। মাকে ফিরিয়ে দেওয়ার সময় স্থানীয় প্রতিবেশী, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

মানুষ বৃদ্ধ হলে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে প্রতিটি মানুষের উচিত তাদের প্রতি সদয় হওয়া, শুভেচ্ছা বিনিময় ও সহমর্মিতা প্রদর্শন করা। আর এটি আমাদের সামাজিক এবং নৈতিক দায়িত্ব। এ ধরনের ঘটনার যাতে শুধু এই পরিবারেই নয় অন্য কোন পরিবারে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সে বিষয়ে উপস্থিত জনতাকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com

 www.bdallbanglanewspaper.com

Design & Developed BY Creative Zoone IT