মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২০ অপরাহ্ন

শিরোনাম
মেহেরপুর জেলা ছাত্রদলের প্রতিকী অনশন পালন মেহেরপুরে গাঁজা ও বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার,আটক-১ সিআইপি নির্বাচিত হলেন দিলীপ কুমার আগরওয়ালা জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের কার্যনির্বাহী পরিষদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন এসএসসি-২০১৩ ও এইচএসসি-২০১৫ ব্যাচের পুনর্মিলনী ১১ ফেব্রুয়ারি: চলছে রেজিস্ট্রেশন মেহেরপুরের গাংনীতে ১২ কেজি গাঁজাসহ আটক-৩ চাঁপাইনবাবগঞ্জ দাফনের পাঁচমাস পর কবর থেকে উত্তোল করা হলো লাশ দর্শনায় “যুব সাহায্য সংস্থা ব্যাচ-৮৭”র কফি হাউজের উদ্বোধন ভেড়ামারা থানা পুলিশের অভিযানে বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত ১২ জন আসামী গ্রেফতার গাংনীতে ডি বি পুলিশের হাতে দুই পলাতক আসামি আটক

খুলনায় বিবাদমান দু’গ্রপের লোকজনের দ্বন্দ্বে গোলাগুলি নিহত ২ : গুলিবিদ্ধ আহত ১০

দৈনিক আমাদের চুয়াডাঙ্গা ডটকম দৈনিক আমাদের চুয়াডাঙ্গা ডটকম

খুলনায় মসজিদের কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত না করা ও পুলিশ কর্তৃক একজনকে গ্রেফতারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের লোকজনের গুলিতে ২ জন নিহত এবং কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনার অব্যাবাহিত পর এলাকার ক’একটি মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে গ্রামবাসীদের একত্রিত করে হামলাকারীদের বাড়ীতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। ঘটনার পর খুলনা মহানগর পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
হামলায় গুলিবিদ্ধ নিহতরা হলেন-নগরীর খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী এলাকার বাসিন্দা নজরুল ইসলাম শেখ (৬০) ও গোলাম রসুল শেখ (৩০)। নজরুলের বুকে ৩টি ও গোলাম রসুলের বুকে ২টি গুলির চিহ্ন রয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার দিনগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে মশিয়ালী এলাকায় সংঘটিত হয় উল্লেখিত এই ঘটনাটি। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আহতরা হলেন-সাইফুল, আফসার, শামিম, রবি, খলিল ও রানাসহ ৯/১০ জন। গুলিবিদ্ধ আহতদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, মশিয়ালী এলাকার বাসিন্দা হাসান আলী মাষ্টারের ছেলে জাকারিয়া (খানজাহান আলী থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-প্রচার সম্পাদক), জাফরিন (খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি) ও মিল্টনের সঙ্গে স্থানীয়দের মশিয়ালী আলিয়া মাদ্রাসা মসজিদের কমিটির বিষয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এলাকাবাসী চায় না মসজিদের কমিটিতে তারা অন্তর্ভুক্ত হোক। অন্যদিকে, তারা জোর করে হলেও কমিটিতে স্থান পেতে মরিয়া ছিল।
উল্লেখিত ওই মশিয়ালী আলিয়া মাদ্রাসা মসজিদের কমিটির দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে খানজাহান আলী থানা পুলিশ জাকারিয়া গ্রুপের একজনকে গ্রেফতার করে। এদিকে ওই গ্রেফতারের প্রতিবাদে জাকারিয়া-জাফরিন ও মিল্টনরা তীব্র ক্ষোভ-প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক ফুসে ওঠে।
শোনা যায়, ওই রাতেই (রাত সাড়ে ৮টার দিকে) তারা ক’একজন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে এলাকাবাসীর সঙ্গে তর্কবিতর্কে লিপ্ত হয়। সৃষ্ট তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে জাকারিয়া-জাফরিন-মিল্টন গ্রুপের ভাড়াটিয়া সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা গ্রামবাসীর ওপর গুলিবর্ষণ শুরু করে। গুলিতে নজরুল ও গোলাম রসুল ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন। পরে তাদেরকে ফুলতলা উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দু’জনকেই মৃত ঘোষণা করে। আহতদেরকে ওই রাতেই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এদিকে, ওই রাতেই উল্লেখিত গোলাগুলি ও হতাহতের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকার ক’একটি মসজিদে ঘোষণা দিয়ে গ্রামবাসীদের একত্রিত করে উত্তেজিত লোকজন প্রতিপক্ষ গ্রুপের জাকারিয়া, জাফরিন ও মিল্টনদের বাড়ীঘর ঘেরাও করে আগুন ধরিয়ে দেয়।
খুলনা মহানগর পুলিশের মুখপাত্র কানাই লাল সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, জাকারিয়া, জাফরিন ও মিল্টন গ্রুপের গুলিতে ২ জন নিহত ও একই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ৭/৮ জন আহত হয়েছেন।
খবর পেয়ে খুলনা মেট্রোপলিটান পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সরদার রকিবুল ইসলামের নেতৃত্বে ব্যাপক সংখ্যক পুলিশ ওই রাতেই ঘটনাস্থল ওই মশিয়ালী গ্রামে অবস্থান নেয় । তবে, গভীর রাতে পাওয়া সর্বশেষ খবর ঘটনাস্থল খুলনা খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী গ্রামটি বর্তমানে পুলিশী ঘেরাও অবস্থায় রয়েছে। হামলাকারীদের গ্রেফতারে পুলিশ ওই গ্রামটিতে চিরুনী অভিযানের প্রস্তুতি নিচেছ।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি