রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন

জ্বর, ঠাণ্ডা, কাশিসহ গলা ব্যথা সারবে এক পাতায়!

dailyamaderchuadanga.com dailyamaderchuadanga.com

হেল্থ ডেস্ক : কখনো গরমে অস্তির হচ্ছেন কখনোবা বৃষ্টিতে আবহাওয়া ঠাণ্ডা। এই ঠাণ্ডা গরমে অনেকেই সাধারণ ফ্লুতে আক্রান্ত হচ্ছেন। ঠাণ্ডা, জ্বর, কাশি, গলা ব্যথা লেগেই আছে। আর উপর রয়েছে করোনার ভয়। চাইলেই হাসপাতাল বা ডাক্তারের কাছে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না।
ঘরোয়া উপায়েই সারিয়ে তুলতে পারবেন এই সব সমস্যা। এজন্য কালমেঘ পাতা খুবই উপকারী। এটি একটি ভেষজ উদ্ভিদ। কালমেঘ বা এন্ড্রোগ্রাফিস পানি চুলাটা, যার উল্লেখ প্রাচীনকাল থেকেই আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে পাওয়া যায়। এর নিয়মিত সেবন নানা রকম রোগের হাত থেকে রক্ষা করে।
এর ওষুধী গুণের জন্য সংস্কৃততে একে ‘সর্ব রোগ নিবারণী’ আখ্যা দেয়া হয়েছে। এছাড়া এর স্বাদ অত্যন্ত তিতকুটে, তাই একে ‘কিং অফ বিটারনেস’ বলা হয়ে থাকে। কালমেঘ পাতা সাধারণত আয়ুর্বেদ, হোমিওপ্যাথি বা ঘরোয়া চিকিৎসার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কালমেঘের উপকারিতা সম্পর্কে-
কালমেঘ ক্যান্সার নিরাময়ের ক্ষেত্রেও অত্যন্ত উপকারী। এর ঔষধিগুণ আমাদের শরীরে ক্যান্সারের কোষগুলোকে বাড়তে দেয় না।
কালমেঘ পাতা জ্বর, ঠাণ্ডা, কাশি, গলা ব্যথা, গলা বসে যাওয়া, টন্সিলাইটিস ইত্যাদি ক্ষেত্রে ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এই পাতা ভালো করে ধুয়ে হালকা গরম পানিতে মিশিয়ে ছেঁকে খেলে ঠাণ্ডা জনিত সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।
কোষ্ঠকাঠিন্য হলে এই পাতার রস মধুর সঙ্গে মিশিয়ে খেতে পারেন। তাড়াতাড়ি সেরে যাবে। পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসীরা শিশুদের বদহজম ও লিভারের সমস্যায় প্রাচীনকাল থেকে এটি ব্যবহার করে আসছে। এই গাছের রস রক্ত পরিষ্কারক, পাকস্থলী ও যকৃতের শক্তিবর্ধক ও রেচক হিসেবেও কাজ করে। এ গাছের পাতা সিদ্ধ করে ক্ষতস্থানে লাগিয়ে দিলে ঘা-পাঁচড়া জাতীয় রোগ দূর হয়ে যাবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি