মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৩২ অপরাহ্ন

শিরোনাম
মেহেরপুর জেলা ছাত্রদলের প্রতিকী অনশন পালন মেহেরপুরে গাঁজা ও বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার,আটক-১ সিআইপি নির্বাচিত হলেন দিলীপ কুমার আগরওয়ালা জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের কার্যনির্বাহী পরিষদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন এসএসসি-২০১৩ ও এইচএসসি-২০১৫ ব্যাচের পুনর্মিলনী ১১ ফেব্রুয়ারি: চলছে রেজিস্ট্রেশন মেহেরপুরের গাংনীতে ১২ কেজি গাঁজাসহ আটক-৩ চাঁপাইনবাবগঞ্জ দাফনের পাঁচমাস পর কবর থেকে উত্তোল করা হলো লাশ দর্শনায় “যুব সাহায্য সংস্থা ব্যাচ-৮৭”র কফি হাউজের উদ্বোধন ভেড়ামারা থানা পুলিশের অভিযানে বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত ১২ জন আসামী গ্রেফতার গাংনীতে ডি বি পুলিশের হাতে দুই পলাতক আসামি আটক

বাংলাদেশে সাংবাদিকদের সুরক্ষা বৃদ্ধির আহ্বান

dailyamaderchuadanga dailyamaderchuadanga

আমোদের চুয়াডাঙ্গা ডেস্ক : সাংবাদিকদের সুরক্ষা বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সাংবাদিকদের অধিকার বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব জার্নালিস্টস (আইএফজে)।
প্রকাশ, গত ৪ জুলাই মুরাদনগর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল আলম চৌধুরীর ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে দায়ীদের বিচারের আওতায় আনার জন্য বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আইএফজে। সংগঠনটি গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেছে।
জানা যায়, চেয়ারম্যান শাহজাহানের নেতৃত্বে ইউনিয়ন পরিষদে দুর্নীতি এবং স্বজনপ্রীতির বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে রিপোর্ট করেন দৈনিক সমকালের স্থানীয় সাংবাদিক শরিফুল। এর প্রতিশোধ হিসেবে একদল দুর্বৃত্ত শরিফুলকে তার কাজিয়াতাল গ্রামের বাড়ী থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে নেয়। এরপর লোহার পাইপ ও হাতুড়ী দিয়ে নৃশংসভাবে হামলা চালাতে থাকে তার ওপর। এ সময় শরিফুলের পিতামাতা ছেলেকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে তাদেরকেও অপদস্ত ও ধাক্কা-ধাক্কি মেরে তাড়িয়ে দেয় হামলাকারীরা। পরে দুবৃত্তদের কবল থেকে শরিফুলকে উদ্ধার করেন স্থানীয়রা।
পরে গুরুতর জখম শরিফুলকে দ্রুত কুমিল্লা জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। হামলার ঘটনায় শরিফুল ও তার পিতামাতা আহত হয়েছেন। তবে শরিফুলের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
এদিকে, এ ঘটনায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ গ্রেফতার করে হামলাকারীদের নির্দেশদাতা চেয়ারম্যান শাহজাহানকে। পুলিশ বলেছে, ওই হামলায় জড়িত অন্যদের শনাক্তের কাজ চলছে। ওদিকে, কুমিল্লার একটি আদালত থেকে সহজেই জামিন পেয়ে যান সাংবাদিক মারপিটের হোতা দুর্নীতিবাজ শাহজাহান চেয়ারম্যান।
আইএফজে বলছে, দুর্ভাগ্যজনক হলো বাংলাদেশে সাংবাদিকদের ওপর হামলা কম হয় না। চাল আত্মসাতের তথ্য সংগ্রহকালে এপ্রিলে আরেকজন সাংবাদিককে প্রহার করা হয়েছে। বাংলাদেশ মানবাধিকার সাংবাদিক ফোরাম বলেছে, এই ঘটনাটি ভয়াবহ। সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যে কোনো রকম সহিংসতার কড়া প্রতিবাদ জানাই আমরা। বিলম্ব না করে অপরাধীদের গ্রেফতার ও শাস্তি দাবী করে ওই সাংবাদিক সংগঠনটি।
আইএফজে আরো বলেছে, শরিফ চৌধুরীর ওপর এই হামলা একটি ভঙ্গুর সামাজিক ও আইনী ব্যবস্থার প্রতীক, যেখানে মত প্রকাশের স্বাধীনতা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হয় না। বাংলাদেশে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যে ধারাবাহিক হামলা হচ্ছে এটি তারই একটি। সহিংসতাকে স্বাভাবিকীকরণ না করতে প্রয়োজনীয় সব কিছু করা উচিত এবং সহিংসতার জন্য অপরাধীদের অবশ্যই বিচার করা উচিত।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 DailyAmaderChuadanga.com এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি